স্মার্ট কার্ড চ্যুত ইসির চূড়ান্ত রোডম্যাপ ! – Ctgnews
ctgnew

স্মার্ট কার্ড চ্যুত ইসির চূড়ান্ত রোডম্যাপ !

নিজস্ব প্রতিবেদক :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্মার্টকার্ড নিয়ে ভোট দিবেন সেই চমকের বদৌলতে উল্টো হতাশ হয়েছেন নগরবাসী।

বর্তমান সংসদের মেয়াদ শেষ হবে ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারি। তার আগেই ৯০ দিনের মধ্যে নির্বাচন হবে বলে নির্বাচন কমিশনার (ইসি)‘র প্রণিত চূড়ান্ত কর্মপরিকল্পনায় (রোডম্যাপ) বলা হয়েছে।

অথচ যন্ত্রপাতি ও জনবল সংকটের কারণে নগরীর বন্দর, পাহাড়তলী, চাঁন্দগাও ও পাঁচলাইশ থানার স্মার্ট কার্ড বিতরণ করতে পারছে না চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন কমিশন। যদিও ছয় মাস আগে নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে চার থানার ভোটারদের কার্ড এসে পৌঁছে।

গত ১৬ মার্চ থেকে নগরীর কোতোয়ালি ও ডবলমুরিং থানা এলাকার ভোটারদের স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হয়। গত চার মাস ধরে এসব কার্ড বিতরণ চলছে। এ দুই এলাকার ভোটারদের এসব কার্ড বিতরণ শেষ করতে আগামী ডিসম্বের মাস পর্যন্ত সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান।

চট্টগ্রাম জেলা নির্বাচন অফিসসূত্রে জানা গেছে স্মার্টকার্ড বিতরণের জন্য স্ক্যানিং মেশিন,আইরিশ পরীক্ষার যন্ত্র ও কম্পিউটার মিলে মাত্র ২৫ টি মেশিন সরবরাহ করা হয়েছে। যাতে হতাশ প্রকাশ করেছে চট্টগ্রাম মহানগরীর বাসিন্দারা। অথচ প্রধান নির্বাচন কমিশনার ৯ জুলাই রাজধানীতে বসে নির্বাচনী রোডম্যাপ চূড়ান্ত করে ফেলেছেন। ৩১ জুলাই থেকে শুরু হবে নিবাচনী সংলাপ। কমিশনারের প্রণিত সাত ধরনের কাজের পরিকল্পনার মধ্যেও জোর দেওয়া হয়েছে পরিচয়পত্র/স্মার্টকার্ড প্রস্তুত করণ ও বিতরণের বিষয়টিও। এতে স্মার্ট কার্ড বিতরণ চ্যুত হয়েছে ইসির চূড়ান্ত রোডম্যাপ।

স্মার্ট কার্ড বিতরণের সময় ভুলে ভরা স্মার্টকার্ড সংশোধন করার আশ্বাস দিয়েছিলেন নির্বাচন কমিশনের এনআইডি উইংয়ের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম। স্মার্ট কার্ড বিতরণের ওই অনারম্বর অনুষ্ঠানে ব্রিগ্রেডিয়ার জেনারেল সাইদুল ইসলাম বলেছিলেন ‘আমার কার্ডেও ভুল আছে। এসময় মহিউদ্দিন চৌধুরীর কার্ডে ছবি দ্রুত সংশোধন করে দেয়ার আশ্বাস দেন তিনি। সেই আশ্বাস পর্যন্তই।

এখন বলা হচ্ছে সংশোধনের জন্য একটা ফরম পূরণ করতে হবে। এতে তাদের যেসব তথ্যের ঘাটতি ছিল তা পূরণ করে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে পাঠানো হবে। শিগগিরই তাদের স্মার্ট কার্ড পুনরায় প্রিন্ট হয়ে আসবে ।

স্মার্ট কার্ড নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই নাগরিকদের। একে তো ভোটার আইডি, তার ওপর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নাগরিকতা বিষয়ক সকল কাজে প্রয়োজনীয় এ কার্ড। ঢাকায় স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হলে দিনক্ষণ শুরু হয়ে যায় চট্টগ্রামে। অপেক্ষা আগের আনস্মার্ট কার্ডগুলোর বদলে একটা স্মার্ট কার্ড পাওয়া যাবে- এই জন্য। আগের অনেকগুলোই ভুলে ভরা। নিজের নাম ঠিকতো বাবার নাম ঠিক নেই, বাবার নাম ঠিক আছে তো মায়ের নাম ভুল। ছবি দেখে নিজের কিনা সন্দেহ হয়। তবুও চলছিল। এরই মাঝে এলো স্মার্ট কার্ডের সুখবর। তাই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা। কিন্তু সে অপেক্ষাও হতাশায় নিমজ্জিত হলো। যথারীতি পূর্বের ভুলের পুনরাবৃত্তিতে। কোন কোন কার্ডে ভুল-অসঙ্গতি। ‘স্মার্ট কার্ডের’ স্মার্টনেস নিয়েও অনেকের প্রশ্ন।

নগরীর চার থানার স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু না হওয়া প্রসঙ্গে সোমবার (১০ জুলাই) জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান সিটিজিনিউজকে বলেন, ‘চার থানার কার্ডগুলো এসেছে ছয় মাস। কিন্তু যন্ত্রপাতি ও জনবল সংকটের কারণে আমরা এসব কার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু করতে পারছি না।’

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে যন্ত্রপাতি সরবরাহ ও জনবল নিয়োগ না দেওয়া পর্যন্ত ডিসেম্বরের আগে চার থানার বিতরণ কার্যক্রম শুরু করা যাবে না বলে জানান এ নির্বাচন কর্মকর্তা।

জেলা নির্বাচন কমিশন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, কোতোয়ালী ও ডবলমুরিং থানা এলাকায় পাঁচটি টিমের মাধ্যমে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হচ্ছে। প্রতিটি টিমে রয়েছে ১৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী। পাঁচটি টিমে মোট ৭৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োজিত আছেন। নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে পাঁচটি টিমের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি বরাদ্দ দেওয়া হয়।

নির্বাচন কর্মকর্তা মুনীর হোসাইন খান বলেন, স্মার্ট কার্ড কার্যক্রম পরিচালনার জন্য নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকেই কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হয়। যন্ত্রপাতিও সেখান থেকে বরাদ্দ দেওয়া হয়। কাজেই নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এ ব্যাপারে পদক্ষেপ না নিলে আমাদের করার কিছুই নেই। যদি এরমধ্যে চার থানার জন্য নতুন করে জনবল নিয়োগ ও যন্ত্রপাতি বরাদ্দ দেওয়া না হয় তাহলে কোতোয়ালী ও ডবলমুরিং থানার কার্যক্রম শেষ হওয়ার পর ধাপে ধাপে বাকি চার থানার কার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে।

নগরীর কোতোয়ালি ও ডবলমুরিং দুই থানার আওতাধীন এলাকাগুলোতে স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে কোতোয়ালিতে ৬৯ হাজার ৩৫১ ভোটার ও ডবলমুরিং থানায় ৯২ হাজার চারজন ভোটা তাদের স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন। দুই থানায় কার্ড বিতরণের হার ক্রমান্বয়ে কোতোয়ালিতে ৫৪.৩৫ % ও ডবলমুরিং থানায় ৬১.৫১%।

সিটিজিনিউজ/এইচএম

সর্বশেষ সংবাদ


নোটিশ : “এই মাত্র পাওয়া” খবর আপনার মোবাইলে পেতে আপনার মোবাইলের ম্যাসেজ অপশন থেকে START পাঠিয়ে দিন 4848 নম্বরে ।
ctgnew
প্রধান উপদেষ্টা : আব্দুল গাফফার চৌধুরী
সম্পাদক : সোয়েব উদ্দিন কবির
ঠিকানা : ৯২ মোমিন রোড ,
শাহ আনিস মার্কেট ৫ম তলা, চট্রগ্রাম ।
মোবাইল : ০১৮১৬-৫৫৩৩৬৬
টিএন্ডটি : ০৩১-৬৩৬২০০

Design and Development by : Creative Workshop

49 queries in 1.249 seconds.