নারী কেলেংকারি-ঘুষ বাণিজ্যে লিপ্ত সিটিভি’র ক্যামেরাম্যান !

0

 

জালালউদ্দিন সাগর :: স্বজনপ্রীতির মাধ্যমে মানহীন অনুষ্ঠান নির্মানের সুযোগ দেয়ার অভিযোগের পর এবার চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ও শিল্পী তালিকাভুক্তিতে ঘুষ নেয়াসহ নারী কেলেংকারির অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম ( চট্টগ্রাম টেলিভিশন বা সিটিভি হিসেবে পরিচিত ) সিটিভির বিরুদ্ধে ।

অভিযোগ উঠেছে, উপস্থাপনায় তালিকাভুক্তি করিয়ে দেয়ার নিশ্চয়তা দিয়ে এক আবেদনকারীর কাছ থেকে ৩০,০০০টাকা (ত্রিশ হাজার ) ঘুষ গ্রহন করেছেন কেন্দ্রের ক্যামেরাম্যান শাহজাহান সিরাজ ।

দুই মাস আগে প্রোগ্রাম প্রডিউসার সাদরিল উল্লা’র যোগসাজসে এই ক্যামেরাম্যানের বিরুদ্ধে এক নারী উপস্থাপিকাকে অশ্লীল প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগ উঠলেও কেন্দ্রের সুনামের সার্থে বিষয়টি ধামাচাপা দেন সিটিভি’র জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মনোজ সেন গুপ্ত।

ওই সময়ে উপস্থাপিকা ও তাঁর পরিবার অশ্লীল প্রস্তাবের অভিযোগ এনে জিএম’র বরাবরে লিখিত আবেদন ও সিটিভি’র মেইন গেইটে বিক্ষোভ করলেও এখনো সে অভিযোগের কার্যত কোনো ব্যবস্থা গ্রহন করেননি সিটিভি কর্তৃপক্ষ।

যাত্রার প্রায় দেড়যুগ পর ছয় ঘণ্টা সম্প্রচারসহ সিটিভিকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা হাতে নেয় বর্তমান সরকার । সে পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সিটিভিকে গতমাসে স্যাটেলাইট’র সাথে যুক্তকরে ছয়ঘণ্টা সম্প্রচার উদ্বোধন করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

চট্টগ্রামের কৃষ্টি ও সংস্কৃতিকে সমুন্নত রাখতে ও বিশ্বব্যাপী প্রচারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই উদ্যোগকে চট্টগ্রামের সাধারণ মানুষ স্বাগত জানালেও কোনো ভাবেই যেনো রাহুমুক্ত হতে পারছেনা সরকার নিয়ন্ত্রণাধীন এই গণমাধ্যম ।

অনুষ্ঠান ভিত্তিক স্বজনপ্রীতি, পক্ষপাতিত্ব ও শিল্পী সম্মানী ও উন্নয়ন বাজেট থেকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ দীর্ঘ দিনের হলেও সম্প্রতি  নতুন করে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ও শিল্পী তালিকাভুক্তিতে ঘুষ লেনেদেনের অভিযোগ উঠেছে সিটিভি’র কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ।

সূত্র জানায়, ছয় ঘন্টা সম্প্রচার নির্বিঘ্ন করতে জরুরি ভিত্তিতে সিটিভিতে চুক্তি ভিত্তিক কিছু লোক নিয়োগ ও প্রোগ্রাম ভিত্তিক কিছু শিল্পী তালিকাভুক্তির অনুমোদন দেয় বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) কর্তৃপক্ষ ।

গত বছরের নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে সিটিভি স্ক্রলে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে নিয়োগ ও তালিকাভুক্তির বিজ্ঞপ্তি প্রচার করে ।ডিসেম্বরের শেষের দিকে ক্যামেরাম্যান (চলমান চিত্রগ্রাহক) , সহকারি ক্যামেরাম্যানসহ অফিস সহকারি’র নিয়োগ দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে সিটিভি কর্তৃপক্ষ । একই সাথে অনুষ্ঠান সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শিল্পী তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়াও শুরু হয়। মূলত এর পর থেকেই চুক্তিভিত্তিক এসব নিয়োগ ও তালিকাভুক্তির ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।
সুত্র জানায়, সিটিভি’র ক্যামেরাপার্সন শাজাহান সিরাজ সংবাদ উপস্থাপনা বিভাগে তালিকাভুক্তি করিয়ে দেয়ার কথা বলে শাহিন নামে এক আবেদনকারীর কাছ থেকে ত্রিশ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন ।

এ ব্যপারে আবেদনপ্রার্থী শাহিন ও ক্যামেরাম্যান সিরাজের সাথে একাধিকবার সিটিভির ক্যান্টিনে বৈঠক হয়েছে জানিয়ে সূত্র আরও জানায়, নগরীর নিউমার্কেট এলাকায় প্রার্থী শাহিন ও সিরাজের মধ্যে ঘুষের কিছু টাকা লেনদেন হলেও বাকি টাকা সিরাজকে বিকাশের মাধ্যমে দেয় শাহিন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চট্টগ্রাম টেলিভিশনের এক শিল্পী সিটিজিনিউজকে বলেন, শুধু তালিকাভুক্তি নন চুক্তিভিত্তিক নিয়োগেও সিটিভিতে ব্যপক দুর্নীতি হয়েছে ।

তিনি বলেন, সম্প্রতি যাদের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হয়েছে তাদের সাক্ষাৎকার (ভাইবা) নিয়েছেন সিটিভিতে কর্মরত (কয়েকজন কর্মকর্তা ) ।

বিটিভির উর্ধ্বতন কোনো কর্মকর্তা সাক্ষাৎকারের সময় উপস্থিত না থাকার সুযোগে মোটা অংকের লেনদেনের মাধ্যমে চুক্তিভিত্তিক এসব নিয়োগ দেয়া হয় জানিয়ে তিনি আরও বলেন, স্বচ্ছ,নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে দুনীতিবাজ এসব কর্মকর্তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত ।

শাহজাহান সিরাজ স্টুডিওতে ক্যামেরা চালায় জানিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে সিটিজিনিউজকে এক প্রশ্নের জবাবে সিটিভির জেনারেল ম্যানেজার মনোজ সেন গুপ্ত বলেন, সিরাজের পক্ষে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ ও তালিকাভুক্তির কাজে যুক্ত থাকার কোনো সুযোগ নেই । আমরাতো সিরাজকে এখানে ঠিকাদার হিসেবে রাখেনি।

এ বিষয়ে সিটিভির ক্যামেরাম্যান শাহজাহান সিরাজ মুঠোফোনে সিটিজিনিউজকে জানান, আপনাদের কাছে এই ধরণের তথ্য থাকলে ছাঁপিয়ে দিন তাতে আমার কিছুই যায় আসেনা !

হাকিম

Share.

Leave A Reply