১৫ কোটি টাকা মু্ল্যের ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা আটক

0
12

নিউজ ডেস্ক ::   টেকনাফে পৃথক অভিযান চালিয়ে প্রায় ১৫ কোটি টাকা মুল্যের ৪ লাখ ৯৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

এসময় একটি অভিযানে ইয়াবা পাচারকারী মিয়ানমারের ২ জন রোহিঙ্গাকে আটক হয়েছে। ইয়াবাসহ আটক রোহিঙ্গারা হলেন মিয়ানমারের মংডু মাঙ্গালা মৃত সিরাজুল মোস্তফার পুত্র মোঃ কামাল আহমদ (৪৫) ও বাসেত আলীর পুত্র মোঃ ইলিয়াস (৩০)।

তাছাড়া অপর একটি অভিযানে টেকনাফের ‘ইয়াবা পল্লী’ খ্যাত সদর ইউনিয়নের নাজিরপাড়া থেকে ১ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা মুল্যের ৬০ হাজার পিস ইয়াবা ইদ্ধার করেছে। তবে রাতের অন্ধকারের সুযোগে ইয়াবা চোরাচালানীরা পালিয়ে যাওয়ায় কাউকে আটক করতে পারেনি বিজিবি।

টেকনাফ-২ বিজিবির অধিনায়ক পরিচালক লেঃ কর্ণেল এসএম আরিফুল ইসলাম জানান, শনিবার রাতে ইয়াবার একটি চালান হ্নীলা ইউপিস্থ নেচারপার্ক বরাবর নাফ নদীর কিনারা দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দমদমিয়া বিওপির হাবিলদার মোঃ লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে একটি টহল দল নেচারপার্ক বরাবর নাফ নদীর কিনারায় অবস্থিত কেওড়া বাগানে গমন পূর্বক ওঁৎ পেতে থাকে। ২৩ সেপ্টেম্বর রাত ৩.২০ ঘটিকায় টহল দল মায়ানমার হতে নাফ নদীর শূন্য লাইন অতিক্রম করে একটি হস্তচালিত নৌকা আসতে দেখে কিনারায় আসার জন্য অপেক্ষারত থাকে। নৌকাটি নাফ নদীর কিনারায় পৌঁছলে ২ টি বস্তা নৌকা থেকে নামানোর সময় টহলদল তাদের আটকের জন্য ধাওয়া করে। এসময ইয়াবা পাচারকারীরা বস্তা ফেলে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে টহলদল ২ জন ইয়াবা পাচারকারীকে ২ বস্তা ইয়াবাসহ আটক করতে সক্ষম হলেও ৬ জন ইয়াবা পাচারকারী মায়ানমারেদিকে চলে যায়। পরবর্তীতে টহল দল ইয়াবা পাচারকারীদের নিকট হতে প্রাপ্ত ইয়াবা ভর্তি ২টি বস্তা খুলে গণনা করে ১৩ কোটি ৭ লক্ষ ৪১ হাজার ৫০০ টাকা মুল্যের ৪ লক্ষ ৩৫ হাজার ৮০৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট এবং একটি মোবাইল ১টি উদ্ধার করতে সক্ষম হয়।

তিনি আরও জানান অপর একটি অভিযানে ২৪ সেপ্টেম্বর আনুমনিক ভোর রাত ২টায় টহলদল গফুর প্রজেক্ট এলাকায় দুইজন লোককে ব্যাগ হাতে করে আসতে দেখে চ্যালেঞ্জ করলে সাথে সাথে তারা পানি ও কর্দমাক্ত মাঠের মধ্য দিয়ে দ্রুত দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এমতাবস্থায় টহলদল তাদের পিছু ধাওয়া করলে এক পর্যায়ে তারা তাদের হাতে থাকা ব্যাগ দুইটি ফেলে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে পার্শ¦বর্তী কেওড়া বাগানে পালিয়ে যায়। টহলদল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া ব্যাগ দুইটি তল্লাশী করে ১কোটি ৮০ লক্ষ টাকা মূল্যমানের ৬০ হাজার পিছ ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে’।

সিটিজিনিউজ/ এইচএম 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here