হাইকোর্টে রাম রহিমের শারীরিক অক্ষমতার আপিল

0 36

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   ::     দুই শিষ্যাকে ধর্ষণের মামলায় ২০ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ভারতের বিতর্কিত ধর্মগুরু গুরুমিত রাম রহিম সিং তার রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন। সোমবার নিজেকে শারীরিকভাবে অক্ষম দাবি করে দেশটির পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে তিনি আপিল করেন বলে টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

গত মাসে আদালতের রায়ে দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর ডেরা সচ্চা সৌদার প্রধান গুরমিত এখন বন্দি রয়েছেন রোহতক জেলা জেলে। আদালতে রায় চ্যালেঞ্জ করে করা আপিলে ৫০ বছর বয়সী গুরমিতের দাবি, তিনি নপুংসক। নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলার ব্যাপারে তিনি একেবারেই অক্ষম। তাকে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়েছে।

গুরুমিতের আইনজীবী বিশাল গর্গ নরওয়ানা বলেন, আমরা সিবিআই আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সোমবার একটি আপিল করেছি পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে। তিনি বলেন, ঘটনার পর (ধর্ষণ) দুই নারীর সাক্ষ্য রেকর্ড করতে ৬ বছরেরও বেশি সময় নিয়েছে সিবিআই আদালত। যে যে যুক্তিতে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে, এটি তার অন্যতম।

গত ২৫ আগস্ট গুরমিত রাম রহিম সিংকে ১৫ বছর আগে দুই শিষ্যাকে ধর্ষণ মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত। ওই রায়ের পর গুরমিতের শিষ্যদের তাণ্ডবে ৩৮ জনের মৃত্যু হয়।

পরে রোহতক জেলে বসে আদালতের বিশেষ সেশন। সেখানে ২০ বছরের কারাদণ্ড হয় গুরমিতের। ধর্ষণের শিকার হওয়া এক নারীর প্রধানমন্ত্রীকে লেখা চিঠির প্রেক্ষিতে ২০০২ সালে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্ট সিবিআইকে ওই ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেয়।
সিটিজি নিউজ/ এসএ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.