হানিপ্রীত বলেছেন ‘যা কিছু বলা হচ্ছে তা মিথ্যা’

0
23

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   ::     সম্প্রতি ভারতের স্বঘোষিত আধ্যাত্মিক গুরু ধর্ষক গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের সঙ্গে তাঁর পালিত কন্যা হানিপ্রীত ইনসানের শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগ ওঠে। তবে এ ধরনের কোনো খবর সত্য নয় বলে জানিয়েছেন হানিপ্রীত।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সিএনএন নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন হানিপ্রীত। সাক্ষাৎকারে হানিপ্রীত বলেন, ‘যা কিছু বলা হচ্ছে তা মিথ্যা… একজন বাবা কি তাঁর হাত মেয়ের মাথায় রাখতে পারেন না? মানুষের অনুভূতির কি মৃত্যু হয়েছে? বাবা-মেয়ের সম্পর্ক কি পবিত্র না? তাঁরা এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ তুলে কী পাচ্ছে?’ সাক্ষাৎকারে রাম রহিমের মুক্তির জন্য হাইকোর্ট ও সুপ্রিম কোর্টে আপিল করবেন বলে জানান হানিপ্রীত। তিনি বলেন, ‘আমি নিশ্চিত আমার বাবা নির্দোষ প্রমাণিত হবেন।’

এদিকে, ২৫ আগস্ট রাম রহিমের সাজা ঘোষণার পর থেকে হানিপ্রীতকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানায় পুলিশ। এর জবাব দিয়ে গিয়ে সিএনএন নিউজ ১৮-কে হানিপ্রীত বলেন, ‘আমি বাসায় ছিলাম… আমি এ বিষয়ে জানতামও না। বাবার জন্য আমরা কান্নাকাটি করছিলাম। আমরা অনেক ভয় পেয়েছিলাম।’

‘বাবা দেশের জন্য অনেক কিছু করেছেন। তিনি কি এমন কিছু করতে পারেন?’, যোগ করেন হানিপ্রীত। রাম রহিমের সাজা ঘোষণার পর হানিপ্রীতের সাবেক স্বামী বিশ্বাস গুপ্ত অভিযোগ করেন, রাম রহিমের সঙ্গে হানিপ্রীতের শারীরিক সম্পর্ক ছিল। চোখের সামনের তিনি বাবা ও হানিপ্রীতকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখেন।

এ খবর ফাঁস না করতে তাঁকে হত্যার হুমকিও দেন রাম রহিম। হানিপ্রীতের ইনসানের আগে নাম ছিল প্রিয়াঙ্কা তানিজা। রাম রহিম তাঁকে পালিত কন্যা হিসেবে পরিচিতি দেন। এরপরই তাঁর নাম পরিবর্তন করা হয়। রাম রহিমের বেশ ঘনিষ্ঠ ছিলেন হানিপ্রীত।

বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাঁদের একসঙ্গে দেখা যেত। কথিত বাবার সঙ্গে একাধিক ছবিতেও অভিনয় করেছেন তিনি। গত ২৫ আগস্ট রাম রহিমকে তাঁর ডেরা সাচা সৌদার দুই সাধ্বীকে ধর্ষণের দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে ২০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেন ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআইর বিশেষ আদালত। বর্তমানে তিনি হরিয়ানা রাজ্যের রোহতাক জেলার সোনারিয়া কারাগারে বন্দি আছেন।

সিটিজিনিউজ / এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here