রেডিসনে ওয়েডিং এক্সপো-২০১৭ উদ্বোধন 

0 33

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

হাকিম মোল্লা: চট্টগ্রাম মহানগরীর রেডিসনে আজ থেকে শুরু হয়েছে ওয়েডিং এক্সপো-২০১৭। বিয়েকে কেন্দ্র করে এটি দ্বিতীয়তম আসর। চট্টগ্রাম, ঢাকা, সিলেটের পাশাপাশি ভারত থেকেও পণ্যসামগ্রী এসেছে মেলায়। এক্সপো উপলক্ষে পাঁচতারা হোটেলটি সাজানো হয়েছে বিয়েবাড়ির সাজে।

বৃহস্পতিবার (০৫ অক্টোবর) সকালে রেডিসন ব্লু চিটাগাং বে ভিউর মেজবান হলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তিন দিনের ‘গ্র্যান্ড ওয়েডিং এক্সপো’র উদ্বোধন করেন নগর পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার ।

উদ্বোধন শেষে প্রধান অতিথি বলেন, এখন মানুষ সবকিছু প্যাকেজের আওতায় একই ছাদের নিচে পেতে চায় । একই ছাদের নিচে যত বেশি সুবিধা পাবে তত বেশি মানুষ আকৃষ্ট হবে। এ মেলা প্যাকেজ ভাবনায় উত্তরণ ঘটাবে।

কমিশনার আরও বলেন, জীবন বাঁচলে জীবন সাজাতে ইচ্ছে করে। জীবন সাজানোর একটা অন্যতম জায়গা হলো বিয়ে। বিয়ে মানুষের জীবনে একবারই আসে। বিয়েতে সাধ্যমতো সাজতে চায়, সাজাতে চায়, মানুষকে দেখাতে চায়। সারা বিশ্বে দুটো শব্দ দিয়ে ব্যবসা চলে, আমার দৃষ্টিতে। একটি হলো হালাল, আরেকটি হারবাল। চট্টগ্রামের মানুষ অন্য যেকোনো জায়গার চেয়ে বেশি সাজতে, সাজাতে চায়।গ্র্যান্ড ওয়েডিং এক্সপোতে গহনার স্টল

বিশেষ অতিথি প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী বলেন, গত বছরও ওয়েডিং এক্সপোতে এসেছি। ভালো হয়েছিল। এবারও ইনশাআল্লাহ ভালো হবে। প্রধান অতিথি কয়েকটি পরামর্শ দিয়েছেন। যেমন বিয়ের ডালা সাজানো। বর কনে সাজানোর উপকরণ যেখানে পাওয়া যাবে সেটি মানুষ গ্রহণ করবে।

উপস্থিত ছিলেন রেডিসনের ফাইন্যান্স কনট্রোলার এটিএম সারোয়ার কামাল, সহকারী পরিচালক (সেলস অ্যান্ড মার্কেটিং) ফারহানুল কবির চৌধুরী, ভায়োলেট ইনকরপোরেটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবিএম খালেদ মাহমুদ, রেডিসন ব্লু’র মার্কেটিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের এক্সিকিউটিভ জাফরিন খান প্রমুখ।

এক্সপোতে শাড়ি, লেহেঙ্গা, গহনা, মেহেদি, স্টেজ, ফুল, লাইটিং, আসবাব, হানিমুন প্যাকেজসহ ওয়েডিং ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। গ্র্যান্ড ওয়েডিং এক্সপোতে রেডিসন ব্লু চিটাগাং বে ভিউ দিচ্ছে চারটি ওয়েডিং প্যাকেজ। যা ১২২২ থেকে ১৯৯৯ টাকা পর্যন্ত। এর সঙ্গে থাকছে রাত্রিযাপনসহ বিশেষ সুব্যবস্থা।

শনিবার (৭ অক্টোবর) পর্যন্ত সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত এক্সপো চলবে। জনপ্রতি এন্ট্রি ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ৫০ টাকা। দর্শকদের জন্য প্রতিদিন মেলা শেষে থাকবে ড্র।

মেলা আয়োজকদের সংশ্লিষ্ট এক সূত্রে জানা গেছে,  মেলা আয়োজনে ব্যয় কিছুটা সীমিত করা হয়েছে। এই মেলা আয়োজনের লভ্যাংশের একটি অংশ  রোহিঙ্গাদের জন্য ব্যয় করা হবে।

সিটিজিনিউজ/এইচএম

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.