নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সনজিদা শরমিনের বিদায় অনুষ্ঠান

0 50

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নিজস্ব প্রতিবেদক :: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ঝুঁকি ছাড়া কোন কিছু অর্জন সম্ভব নয়। সাহস, মানসিকতা, দৃঢ়তা ও কাজের আগ্রহ থাকলে অসম্ভবকে সম্ভব করে তোলা সম্ভব।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মিসেস সনজিদা শরমিন দৃঢ়তার সাথে ঝুঁকি নিয়ে বিচক্ষণতা, দক্ষতা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করে নজির স্থাপন করেছে। মেয়র চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের এই ম্যাজিষ্ট্রেটের দায়িত্বপালন কালীন সকল কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। তিনি তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করে বলেন, প্রজাতন্ত্রের সকল কর্মকর্তা আন্তরিকতা, সততা ও নিষ্ঠার সাথে কর্তব্য সম্পাদন করলে দেশ ও জাতি কাংখিত লক্ষ্যে পৌঁছতে কোন বাধা থাকবে না।

১২ অক্টোবর বৃহষ্পতিবার দুপুরে মেয়র বাসভবনে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মিসেস সনজিদা শরমিনের বিদায়ী অনুষ্ঠানে মেয়র এসব কথা বলেন।

প্রায় দেড় বছর চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের দায়িত্ব সফল ভাবে সম্পাদন করে সরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে বদলিজণিত কারনে বিদায়ী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মিসেস নাজিয়া শিরিন, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা ড. মুহম্মদ মুস্তাফিজুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম জেলা জজ ও স্পেশাল ম্যাজিষ্ট্রেট মিসেস জাহানারা ফেরদৌস, বিদায়ী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সনজিদা শরমিন, বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, প্রধান হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মো. সাইফুদ্দিন, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ শফিকুল মন্নান সিদ্দিকী, তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোছাইন, আবু সালেহ,উপ সচিব আশেক রসুল চৌধুরী টিপু, নির্বাহী প্রকৌশলী অসীম বড়ুয়া, সুদিপ বসাক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম সহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বিদায়ী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সনজিদা শরমিন তাঁর চাকুরী জীবনের ১৩ বছরের মধ্যে ১১ বছর চট্টগ্রামে দায়িত্বপালন করার অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বলেন, নানামুখি প্রতিকূল ও ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি মোকাবেলা করে দায়িত্ব পালন করতে বাধ্য হয়েছি। জীবনের মায়া কোনদিন করিনি। আগামীদিনগুলোতে সততা ও দৃঢ়তার সাথে দায়িত্বপালনে আশাবাদী। তিনি বলেন, চট্টগ্রামে মেয়রের সহযোগিতায় দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিজেকে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। আগামীদিনগুলোতেও তিনি মেয়রের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। বিদায়ী অনুষ্ঠানে মেয়র বিদায়ী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটকে ফুল, ক্রেষ্ট ও উপহার সামগ্রী দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

সিটিজিনিউজ/এইচএম

 

 

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.