বিসিবির সভাপতি পদ হতে পাপনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে

0 21

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

ক্রিয়া ডেস্ক   ::  বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির সভাপতি হিসেবে মঙ্গলবার চারবছরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে নাজমুল হাসান পাপনের। দেশে-বিদেশে টাইগার ক্রিকেটের সাফল্য, কোচিংর স্টাফে বড় পরিবর্তন আনা, ক্রিকেট কূটনীতি ও অর্থনীতিতে বাংলাদেশের অর্জনের অংশীদার তিনি।

সফলতার পাশাপাশি নানা কারণে সমালোচিতও হয়েছেন পাপন। খেলোয়াড়দের উপর নিজের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা ও সাংগঠনিক দুর্বলতা নিয়েও অভিযোগের অন্ত নেই তার বিরুদ্ধে। আগামী ৩১ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বোর্ড নির্বাচন।ক্রিকেট মহলে জোর গুঞ্জন আবোরো বোর্ড সভাপতি হচ্ছেন নাজমুল হাসান পাপন।

নাজমুল হাসান পাপন। বিসিবির আলোচিত সমালোচিত সভাপতি। বক্তৃতায় পটু। কথা বলেন মন খুলে। রাখঢাক না রেখে তুলোধুনো করেন খেলোয়াড়দের। আ হ ম মোস্তফা কামালের পর সভাপতি হিসেবে মনোনীত হন পাপন। তারপর নির্বাচনের মাধ্যমে পাকাপোক্ত হয় ক্ষমতা।

রাজনীতিবিদ থেকে পুরোদস্তর ক্রিকেট প্রশাসক নাজমুল হাসান।শুরু থেকে শৃঙ্খলার ব্যাপারে আপোষহীন। সিনিয়র ক্রিকেটারদের সময়মত অনুশীলন আর মাঠের বাইরের কর্মকাণ্ডেও কঠোর বিসিবি।

২২ গজে টাইগার ক্রিকেটের যত সাফল্য তার বেশির ভাগই পাপনের আমলে। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের অর্জন। এশিয়া কাপে দাপট। ঘরের মাঠে বড় বড় দলকে নাস্তানাবুদ করেছে বাংলাদেশ। লাল সবুজের অর্জনে প্রশংসা পেতেই পারেন বোর্ড সভাপতি।

মুশফিককে সরিয়ে মাশরাফিকে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টির অধিনায়ক করা। কোচিং স্টাফে বড় ধরণের পরিবর্তন। সবই হয় নাজমুল হাসানের মেয়াদে। ক্রিকেট কূটনীতিতে আছে তার ভূমিকা। আইসিসি সভায় কথা বলেছেন জোড় গলায়। ক্রিকেট মোড়লদের সমালোচনা করতেও ছাড়েননি পাপন।

মুদ্রার অন্য পিঠও আছে। বিতর্কও সঙ্গী হয়েছে নাজমুল হাসানের। ক্রিকেটারদের দলে রাখা না রাখা নিয়ে তার খবরদারী ভালো চোখে দেখেন নি সমর্থকরা। বিপিএলে হয় ফিক্সিং কাণ্ডেও সমালোচকদের আঁতশকাচের নিচে পড়েন পাপন।

প্রধান নির্বাচক পদ থেকে ফারুক আহমেদের সরে যাওয়া। টি-টুয়েন্টির অধিনায়কত্ব থেকে মাশরাফিকে সরিয়ে দেয়া। শততম টেস্টে মাহমুদুল্লাহকে বাদ দেয়া। নাসিরকে দলে না রাখা। হালে মুশির ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা। সবই আছে আমলনামায়। টিম ম্যানেজমেন্টে কোচ হাথুরুর বাড়াবাড়িতে পাপনেরও দায় দেখেন অনেকে।

নির্বাচিত হয়ে চার বছর মেয়াদ শেষ করেছেন নাজমুল হাসান। আবারো বোর্ডের দায়িত্বে আসবেন কিনা এমন প্রশ্নেও বিতর্ক করেছেন নিজেই।

ক্রিকেট পাড়ার খবর, পরবর্তী চারবছরের জন্য দেশের ক্রিকেটের দায়িত্ব পাচ্ছেন পাপন। ফলে বলাই এখানেই শেষ হচ্ছে না পাপন যুগ।
সিটিজিনিউজ / এসএ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.