কিরকুর শহর ইরাকি সেনাবাহিনীর নিয়ণ্ত্রণে

0
17

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   ::  ইরাকের কুর্দি অধ্যুষিত কিরকুক শহর দখলে নিয়েছে ইরাকি সেনাবাহিনী। সোমবার তারা অভিযান চালিয়ে স্থানীয় সরকারের সদর দপ্তরগুলোর নিয়ন্ত্রণ নেয় এবং সেখান থেকে কুর্দি পতাকা সরিয়ে ইরাকের পতাকা ওড়ায়।

সেনারা এরইমধ্যে খোরমাতু জেলা, কুর্দিদের একটি বিমান ঘাঁটি, তেলক্ষেত্র এবং শহরের বিমানবন্দরের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। কুর্দিস্তানের জনগণের ওপর যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলে বাগদাদকে চরম মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি করেছে পেশমার্গা বাহিনী।

এ অবস্থায় উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরাকের কুর্দি অধ্যুষিত কিরকুকে অভিযান শুরুর মাত্র ১২ ঘণ্টার মাথায় শহরটির পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নেয় সেনাবাহিনী। সেনাদের সাজোঁয়া যানের বহর শহর জুড়ে মহড়া চালিয়ে প্রাদেশিক সদর দফতরগুলো দখলে নেয় এবং সেখান থেকে কুর্দি পতাকা সরিয়ে ইরাকের জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে।

কিরকুক ও এর আশপাশের যেসব এলাকা কুর্দি ও কেন্দ্রীয় সরকার উভয়েই নিজেদের দাবি করে আসছে সেসব জায়গাতেও ইরাকি পতাকা ওড়ায় সেনাবাহিনী।এতো কম সময়ে কিরকুক দখল আনতে পেরে উল্লাস প্রকাশ করে তারা।

কুর্দিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী-পেশামার্গা কোন প্রতিরোধের চেষ্টা না করেই শহর থেকে পালিয়ে যায়। এ কারণে বিনা বাধায় কিরকুকের কেন্দ্রস্থলে প্রবেশ করে সেখানকার তেলক্ষেত্রগুলো দখল করে সেনাবাহিনী। শহরের বিমানবন্দর থেকে শুরু করে কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ তাজা খোরমাতু জেলা এবং কুর্দিদের বিমান ঘাঁটি নিয়ন্ত্রণ নেয়ার কথাও জানায় তারা।

সামরিক শক্তি প্রদর্শন নয় বরং নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যেই কিরকুকে অভিযান পরিচালনার কথা জানান ইরাকের যৌথ বাহিনীর প্রধান। শান্তি বজায় রাখতে পেশমার্গাকে সহযোগিতা করারও আশ্বাস দেন তিনি। তিনি বলেন, কুর্দিস্তানের বেসামরিক নাগরিকদের নিরাপত্তা দেয়া আমাদের প্রধান কাজ।

আমরা আর যাই হোক সহিংসতা ছড়াতে দেবো না। কুর্দিস্তানের জনগণের ওপর যুদ্ধ চাপিয়ে দেয়ার অভিযোগ তুলে বাগদাদকে এর চরম মূল্য দিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে পেশমার্গা।শেষ রক্তবিন্দু পর্যন্ত কুর্দিস্তানের স্বাধীনতার পক্ষে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার কথা জানান কিরকুকের বেশিরভাগ মানুষ।

স্থানীয় এক ব্যক্তি বলেন, আমার শহর আমার মর্যাদার জায়গা। এই মর্যাদা রক্ষায় আমরা প্রাণ দিতেও প্রস্তুত।কুর্দিস্তানের স্বাধীনতার প্রশ্নে গত ২৫শে সেপ্টেম্বর যে গণভোট হয়েছিলো তার জবাবে এই অভিযান চালানোর কথা জানায় বাগদাদ।

ওই গণভোটের নিন্দা জানিয়ে কুর্দিস্তান থেকে ছেড়ে যাওয়া বা কুর্দিস্তানে অবতরণের জন্য কোন ফ্লাইটকে তুরস্কের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি করেছে আঙ্কারা। এমন পরিস্থিতিতে উভয় পক্ষকে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।
সিটিজিনিউজ / এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here