বোয়ালখালীতে জাতীয়করণ তালিকায় বহালের দাবিতে মানববন্ধন

0 18

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বোয়ালখালী প্রতিনিধি: বোয়ালখালীতে গোমদন্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীকরণ তালিকায় বহালের দাবিতে মানববন্ধনে স্থানীয় সাংসদ বাদলকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করেছে আয়োজকরা।

সোমবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে বোয়ালখালী উপজেলা পরিষদের সম্মুখ সড়কে হাজারো শিক্ষার্থী, অভিভাবক, শিক্ষক, বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ ও আওয়ামী নেতৃবৃন্দ এ মানববন্ধনে অংশ নেন।

উপজেলা সদরের সচেতন জনসাধারণের ব্যানারে আয়োজিত প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা এ মানবন্ধনে চট্টগ্রাম-৮ আসনের সাংসদ মঈন উদ্দিন খান বাদলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন শ্লোগান দেয়া হয়। এসময় উপজেলা সদরের প্রধান সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে পড়ে।

এতে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাউন্সিলর শামীম আরা বেগম, প্যানেল মেয়র শাহাজাদা এসএম মিজানুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা আবল বশর, পৌর আওয়ামীলীগের আহ্বায়ক জহুরুল ইসলাম জহুর, যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ শহীদুল আলম ও বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিষু কুমার বড়–য়া।

ব্যক্তিগত আক্রোশে স্থানীয় সাংসদ এ উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ হতে দেননি জানিয়ে বক্তারা বলেন, যদি গোমদন্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীকরণ করা না হয়, তাহলে আরো কঠোর কর্মসূচী পালন করা হবে। এছাড়া স্থানীয় সাংসদের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বক্তারা। মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফিয়া আখতারের কাছে স্মারকলিপি দেন তারা।

ঢাকায় রয়েছেন জানিয়ে এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মঈনুল আবেদীন নাজিম জানান, গত দুইমাস আগে গোমদন্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণে তালিকাভুক্ত করা হয় ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় চিঠি প্রদান করেন। এর প্রেক্ষিতে গত ১২ অক্টোবর মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দল বিদ্যালয় পরিদর্শন করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। কিন্তু গতকাল রোববার কোনো কারণ ছাড়াই এ বিদ্যালয়কে জাতীয়করণের তালিকা হতে বাদ দেয়া হয়েছে বলে জানতে পারি।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. ইউনুচ বলেন, গোমদন্ডী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় জাতীয়করণ হয়েছে বা বাদ দেয়া হয়েছে এ ধরণের কোনো চিঠিপত্র পাওয়া যায়নি। তাই এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছি না।

এ বিষয়ে স্থানীয় সাংসদ মঈন উদ্দিন খান বাদলের মুঠো ফোনে সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। এছাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুঠোফোন বন্ধ রাখায় তার বক্তব্যও পাওয়া যায়নি।

বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘এ বিদ্যালয় জাতীয়করণের তালিকায় রয়েছে তা জানি। তবে বাদ পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত নই।’

সিটিজিনিউজ/এইচএম

 

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.