বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের প্রবেশ থেমে নেই

0 27

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নিউজ ডেস্ক   ::  নিন্মচাপ কাটিয়ে সাগর শান্ত হওয়ার পাশাপাশি মাছ ধরা নৌকা চলাচল শুরু হওয়ায় টেকনাফের বিভিন্ন সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা ঢল আবারো বাংলাদেশমুখী হয়েছে।

আরো ৫০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের জন্য অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানিয়েছে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন।

তবে নাফ নদীতে নৌকা চলাচল বন্ধ থাকায় অনুপ্রবেশের ক্ষেত্রে বঙ্গোপসাগরের বিপজ্জনক মোহনাকেই ব্যবহার করছে রোহিঙ্গারা।

বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী মিয়ানমারের পদনছা ও নাইক্ষ্যংদিয়া চরে গত তিন সপ্তাহ ধরে হাজার হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের জন্য অপেক্ষা করছিল।

অবশ্য এর মধ্যেই তাদের একটি বড় অংশ গত সপ্তাহে উখিয়ার আঞ্জুমান পাড়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে।

নিম্ন চাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকার পাশাপাশি কয়েকদিন নৌকা চলাচল বন্ধ থাকায় তাদের অনেকের অপেক্ষার প্রহর কিছুটা দীর্ঘায়িত হয়। তবে ২২শে অক্টোবর থেকে পুনরায় নৌকা চলাচল শুরু হলে, আবারো রোহিঙ্গা ঢল নেমেছে বাংলাদেশে।

শরণার্থী বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংগঠন ইউএনএইচসিআর আন্তর্জাতিক মুখপাত্র ভিভিয়ান থান জানান, প্রাণ বাঁচাতে এখনো বাংলাদেশে প্রবেশের জন্য হাজার হাজার রোহিঙ্গা মিয়ানমার সীমান্তে অপেক্ষা করছে।

তবে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, সীমান্তে অপেক্ষামান রোহিঙ্গার সংখ্যা ৫০ হাজারের বেশি।প্রশাসনের তথ্য অনুযায়ী, সীমান্তে অপেক্ষামান রোহিঙ্গার সংখ্যা ৫০ হাজারের বেশি।

পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের দাবি, সর্বনিন্ম ১৪ থেকে সর্বোচ্চ ২৫ দিন পর্যন্ত তারা মিয়ানমারের বিভিন্ন চর এবং জঙ্গলে পালিয়ে ছিলো। নৌকা চলাচল শুরু হওয়ায় পালিয়ে এসেছে তারা।

সুযোগ পেলে তারা বাংলাদেশে আসবে।’ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত ৩০শে সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ৩১শে অক্টোবর পর্যন্ত নাফ নদীতে সব ধরণের নৌ চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়।

এ অবস্থায় রোহিঙ্গারা নাফ নদী এড়িয়ে বঙ্গোপসাগরের মোহনা হয়ে শাহপরী দ্বীপে আসছে বলে জানিয়েছে প্রশাসনের কর্মকর্তারা।
সিটিজিনিউজ / এসএ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.