রোহিঙ্গাদের কারণে কক্সবাজার শিক্ষা ব্যবস্থায় প্রভাব পড়ছে

0
17

নিউজ ডেস্ক   ::  চলমান রোহিঙ্গা সংকটের প্রভাব পড়েছে কক্সবাজারের সার্বিক শিক্ষা ব্যবস্থায়। শরণার্থীদের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে অস্থায়ী কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করায় মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে উখিয়া ও টেকনাফের অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম।

পাশাপাশি গত দুমাস ধরে পাঠদান বন্ধ থাকায় পহেলা নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা নিয়ে উদ্বিগ্ন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। এ অবস্থায় উপজেলার শিক্ষা ব্যবস্থায় বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে শরণার্থী ত্রাণ ও পুনর্বাসন কমিশন আশ্বাস দিয়েছে, ধীরে ধীরে এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে কার্যক্রম সরিয়ে আনা হবে।

শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উখিয়ার বালুখালী কাশেমিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকার কথা কিন্তু পুরো বিদ্যালয়ে চলছে রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিভিন্ন সংস্থার নানা কার্যক্রম। শ্রেণী কক্ষকে ব্যবহার করা হচ্ছে অস্থায়ী ব্যারাক, ত্রাণ কেন্দ্র অথবা রোহিঙ্গা নিবন্ধনের বুথ হিসেবে। শুধু এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই নয়, উখিয়া ও টেকনাফের ২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একই চিত্র।

রোহিঙ্গা ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন কার্যক্রমের ফলে প্রায় দুই মাস ধরে পাঠদান কার্যক্রম বন্ধ থাকায় চরম বিপাকে পড়েছে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। পহেলা নভেম্বরে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা, তাই সন্তানদের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা।

এ অবস্থায় খারাপ ফলাফলের পাশাপাশি উপজেলার শিক্ষা ব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা উখিয়া বালুখালী কাশেমিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক অমল ভট্টাচার্য্য।

বিষয়টি স্বীকার করে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নিজেদের কার্যক্রম সরিয়ে নেয়া হবে বলে জানালেন শরণার্থী ত্রাণ ও পুনর্বাসন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম। জেলা মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার দেয়া তথ্য মতে, উখিয়া ও টেকনাফের ২৭টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৫ হাজারের বেশি।

সিটিজিনিউজ / এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here