সতীশ বাবু লেইন শ্রীশ্রী পূজা উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে ৪ দিনব্যাপী শ্যামা পূজা উদ্যাপিত

0 20

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নিজস্ব প্রতিবেদক  ::       ১৮ অক্টোবর ২০১৭ইং বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় মঙ্গল প্রাদীপ প্রজ্জ্বলন উৎসব, মাতৃসম্মেলন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও পুরস্কার বিতরণী সভা অনুষ্ঠিত হয়। পূজা কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি মিলন কান্তি দাশ এর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ট্রাফিক (সিএমপি) দেবদাস ভট্টাচার্য।

বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৩২নং আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, ৩৩নং ফিরিঙ্গীবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য। এতে আরো বক্তব্য রাখেন উদ্যাপন কমিটির সভাপতি সুজিত সরকার, সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাশ, জয় প্রকাশ দে, শিক্ষক নেতা ও আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল চৌধুরী, স্বাগত বক্তব্য রাখেন পূজা কমিটির অর্থ সম্পাদক ও শ্যামা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুজন কুমার ভট্টাচার্য।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কোতোয়ালী থানা পূজা উদ্যাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অনিন্দ্য দেব, অনুষ্ঠানে সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য বরেণ্য শিক্ষাবিদ সন্তোষ কুমার চক্রবর্ত্তী, কাউন্সিলর জহরলাল হাজারী, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, লায়ন আশীষ কুমার ভট্টাচার্য, শিক্ষিকা নমিতা পালিত, শিক্ষিকা সুনন্দা সেনগুপ্তা ও নৃত্য প্রশিক্ষক শুভ্রা সেনগুপ্তাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

এতে প্রধান অতিথি দেবদাস ভট্টাচার্যকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। প্রধান অতিথি দেবদাস ভট্টাচার্য তাঁর বক্তব্য প্রদানকালে বলেন, আজকের এই অনুষ্ঠানটি আমার জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। আমি প্রথমেই উপস্থিত সবাইকে শ্যামা পূজা উপলক্ষে একতা, সম্প্রীতি, ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রত করে দেশমাতৃকার কল্যাণে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য আহ্বান জানাই।

সাথে সাথে সরকারের পক্ষ থেকে তাঁকে ডিআইজি পদে পদোন্নতি দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, যখন সমাজের অসুর শক্তির উত্থান ঘটে, তখন মা ধরণীতে অবতীর্ণ হয়ে অসুরদের বিনাশ করে সমাজে শান্তি ও ধর্মের পথ সুগম করেন।

তিনি সতীশ বাবু লেইন পূজা উদ্যাপন পরিষদের ৪ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন ঘোষণা করেন। ১৯ অক্টোবর ২০১৭ইং বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টায় পূজা মন্ডপে মঙ্গলারতি ও শ্রীশ্রী শ্যামা মায়ের পূজা। ২০ অক্টোবর শুক্রবার বিকাল ৩টায় পূজা মন্ডপে শিশু-কিশোর চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং সন্ধ্যায় পুরস্কার বিতরণ ও ঢাকা-চট্টগ্রাম সংগীতশিল্পীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে নৃত্য প্রশিক্ষক শুভ্রা সেনগুপ্তার পরিচালনায় শিশুশিল্পীরা নৃত্য পরিবেশন করে।

উপস্থিত ছিলেন রতন কৃষ্ণ দে, কার্ত্তিক দে, সীমান্ত ভট্টাচার্য, দীপক পলিত, মহিলা সম্পাদিকা রত চক্রবর্ত্তী, টিটু সাহা, সজল দাশ, কানু আচার্য, রাহুল দে, বাপ্পী মল্লিক প্রমুখ। ২১ অক্টোবার ২০১৭ইং শনিবার মায়ের নিরঞ্জনের মাধ্যমে মাতৃ অর্ঘ্যরে সমাপ্তি ঘটে। সমগ্র অনুষ্ঠান সঞ্চালনাায় মিলন কান্তি দাশ। সম্পূর্ণ ৪ দিনব্যাপী শ্যামা পূজার টাইটেল স্পন্সর করেন ডিরেক্টর ফরচুন ফ্রেইট লি: এর সুজন কুমার ভট্টাচার্য।

সিটিজিনিউজ/এসএ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.