৩৭ বছর ধরে দল পরিচালনাকারী মুগাবের পদত্যাগের আহবান!

0 102

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  ::  যে দলকে বহু বছর ধরে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন সেই ক্ষমতাসীন জানু-পিএফ পার্টিই আর প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না।

দলটির পক্ষ থেকে ৩৭ বছর ধরে দেশ পরিচালনাকারী মুগাবের ওপর অনাস্থা প্রকাশ করে তাকে পদত্যাগের আহ্বান জানানো হয়েছে।

জিম্বাবুয়ের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি এ খবর দিয়েছে। খবরে বলা হয়েছে, দেশটির হেরাল্ড নিউজ পেপারের সংবাদ অনুযায়ী, জিম্বাবুয়ের ১০টি আঞ্চলিক শাখা থেকেই মুগাবেকে পদত্যাগের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

শনিবার দেশটির রাজধানী হারারেতে একটি বিক্ষোভ সমাবেশ হবার কথা রয়েছে। সেনা সমর্থনেই এই সমাবেশ হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।সেই বিক্ষোভের আগেই জানু-পিএফ পার্টির আঞ্চলিক শাখাগুলো তাকে পদত্যাগের আহ্বান জানানো হলো।

দেশটির উদারপন্থীরাও তাকে পদত্যাগের আহ্বান জানিয়েছে। বুধবার সেনাবাহিনী জিম্বাবুয়ের নিয়ন্ত্রণ নেবার পর থেকে মুগাবে গৃহবন্দী আছেন, যদিও তিনি পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছেন বলে জানা যাচ্ছে।

সেনারা দেশটির নিয়ন্ত্রণ নেবার পর শুক্রবার প্রথমবারের মতো তাকে জনসম্মুখে দেয়া যায়। সে সময় তিনি একটি সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দেন। ১৯৮০ সাল থেকে জিম্বাবুয়ের ক্ষমতায় রয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে।

প্রেসিডেন্ট মুগাবে গত সপ্তাহে তার ভাইস-প্রেসিডেন্ট এমারসন নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করলে এই রাজনৈতিক সংকটের সূচনা হয়।

নানগাগওয়াকে এতদিন প্রেসিডেন্ট মুগাবের উত্তরসূরী ভাবা হলেও সম্প্রতি তার জায়গায় ফার্স্ট লেডি গ্রেস মুগাবের নাম সামনে চলে আসে।

এর জের ধরে নানগাগওয়াকে বরখাস্ত করেন মুগাবে। আর তারপরই দেশটির ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করে জিম্বাবুয়ের সেনাবাহিনী। অবশ্য নানগাগওয়াকে পদচ্যুত করার সময়ই সরকারকে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন সেনাপ্রধান কনস্টান্টিনো চিয়েঙ্গা।

কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেনি সরকার। আর তারই মাসুল দিতে হচ্ছে প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবেকে। ইতোমধ্যে তার স্ত্রী (৪১ বছরের ছোট) গ্রেস মুগাবে দক্ষিণ আফ্রিকায় পালিয়ে গেছেন বলে সংবাদ বেরিয়েছে।

সিটিজিনিউজ /এস এ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.