ইরান ও সৌদি আরব একে অপরকে দোষারোপ করছে

0
64

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   ::    ইরানের বিরুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতা তৈরি এবং শিয়া মতাদর্শী বিদ্রোহীদের মদদ দেয়ার অভিযোগ এনে দেশটির বিরুদ্ধে আরব বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে সৌদি আরব ও বাহরাইন। সৌদি আরব ও তার মিত্রদের এমন অভিযোগ অস্বীকার করে রিয়াদের বিরুদ্ধে মধ্যপ্রাচ্যে সন্ত্রাসবাদ উস্কে দেয়ার পাল্টা অভিযোগ করেছে ইরান।

এসবের মধ্যেই ইরানকে রুখে দিতে সৌদি আরবের সঙ্গে নিজেদের গোপন আঁতাতের বিষয়টি প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে আনল ইসরাইল। সৌদি আরবের আহ্বানে রোববার মিশরের কায়রোতে জরুরি বৈঠকে বসেন আরব লিগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা।

রিয়াদের বিমানবন্দর লক্ষ্য করে হাউথি বিদ্রোহীদের হামলা, লেবাবনের প্রধানমন্ত্রীর আকস্মিক পদত্যাগকে ঘিরে সৌদি-ইরান পারস্পরিক বাগযুদ্ধের মধ্যেই বৈঠক হলো। মূল বৈঠকের আগে সংস্থার মহাসচিবের উপস্থিতিতে মিশর, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন।

পরে বৈঠকে নেয়া সিদ্ধান্তের বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ইরানের বিরুদ্ধে ইয়েমেনের হাউথি বিদ্রোহীদের সৌদি আরবে হামলায় সহযোগিতার অভিযোগ এনে, বিভিন্ন আপত্তির কথা তুলে ধরেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবেইর।

মুসলমানদের কেবলা মক্কাসহ পবিত্র নগরীকে লক্ষ্য করে ইরানের কর্মকাণ্ড পুরো মুসলিম বিশ্বকে ক্ষুব্ধ করে তুলছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল জুবেইর বলেন, ‘রিয়াদকে তাক করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ইরানের শত্রুতার বহিঃপ্রকাশ।

হাউথি বিদ্রোহীদের মাধ্যমে সৌদি আরবের দিকে এ পর্যন্ত ৮০টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। মুসলমানদের পবিত্র কেবলা মক্কাও তাদের আক্রমণের লক্ষ্য থেকে বাদ যায়নি।

এ সব কর্মকাণ্ড প্রতিহত করার মাধ্যমে নিরাপত্তা এবং স্থিতিশীলতা রক্ষায় সৌদি আরবের সঙ্গে সবাইকে একাত্ম হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।’ ইরানের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডকে অগ্রহণযোগ্য বলে আখ্যায়িত করেছেন আরব লিগের মহাসচিব।

ইরানের ভয়াবহ কর্মকাণ্ড আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা বিনষ্ট করছে উল্লেখ করে বিষয়টি নিরাপত্তা পরিষদকে অবহিত করার পরিকল্পনার কথাও জানান তিনি।

আরব লিগের মহাসচিব আহমেদ আবুল গেইত বলেন, ‘সৌদি আরবের দিকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা ইরানের যুদ্ধবাদী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ। এ বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক ডাকার সিদ্ধান্ত আমরা নেইনি। বিষয়টি পরিষদকে অবহিত করার পরিকল্পনা করেছি।

পরে নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক ডাকার পাশাপাশি ইরানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আরব রাষ্ট্রগুলোর পক্ষ থেকে একটি খসড়া প্রস্তাবও জমা দেয়া হতে পারে।’

আরব লিগের এসব অভিযোগ অস্বীকার করে এক টুইট বার্তায় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেন, সৌদি রাজতন্ত্র এমন সময় মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিতিশীলতার জন্য ইরানকে দায়ী করেছে, যখন সৌদি আরব নিজেই ইয়েমেনে যুদ্ধ চালাচ্ছে, কাতারকে একঘরে করে রেখেছে এবং লেবাননে রাজনৈতিক সঙ্কট তৈরি করে সন্ত্রাসবাদ কায়েম করেছে।

এসবের মধ্যই, ইরানকে রুখে দিতে পরস্পর গোয়েন্দা তথ্য আদান-প্রদানের ঘোষণার পর রিয়াদের সঙ্গে তেল আবিবের গোপন আঁতাতের কথা স্বীকার করেছে ইসরাইল।

আর্মি রেডিওকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে ইসরাইলের জ্বালানিমন্ত্রী ইউডাল স্টাইনিৎজ বলেন, সৌদি আরবসহ অন্যান্য আরব রাষ্ট্রের সঙ্গে যোগাযোগ ইরানকে প্রতিহত করার কাজে ইসরাইলকে সহযোগিতা করছে।
সিটিজিনিউজ / এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here