বাশঁখালীতে দিনমজুর হত্যা,ইউপি চেয়ারম্যান জড়িত

0 35

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এক দশক আগে পাহাড় কাটার সময় দুই দিনমজুরের অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগ এনে বাঁশখালীর এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা হয়েছে। বাঁশখালীর পুকুরিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.আসহাব উদ্দিনের (৬৩) তখন ইউপি সদস্য ছিলেন।

মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) চট্টগ্রামের জেষ্ঠ্য বিচারিক হাকিম হোসেন মো.রেজার আদালতে বাঁশখালীর চন্দ্রপুরের বাসিন্দা মোস্তাকিম উদ্দিন শিপু বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন।

বিচারিক হাকিম মামলা গ্রহণ করে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা ইউনিটের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওই আদালতের পেশকার নজরুল ইসলাম।

মামলার আরজিতে বলা হয়েছে, ২০০৭ সালের জুন মাসে বাঁশখালীর চন্দ্রপুর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে কামাল (১২) এবং ২০০৮ সালের জানুয়ারি মাসে আব্দুল মাবুদের ছেলে আবু ছৈয়দকে মাটিচাপা দিয়ে হত্যা করা হয়। মামলার বাদি শিপু তাদের প্রতিবেশি।

আসহাব উদ্দিন ইউপি সদস্য থাকার সময় সন্ত্রাসী দিয়ে পাহাড়, গাছ ও ‍মাটি কেটে পরিবেশের ক্ষতিসাধন করে ঝিনুক পোল্ট্রি ফার্ম নামে একটি খামার স্থাপন করেন বলে মামলার আরজিতে বলা হয়েছে।

বাদির আইনজীবী মোকাররম হোসেন বলেন, খামার স্থাপনের জন্য পাহাড়ের মাটি কাটার সময় পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখেননি আসহাব উদ্দিন। এতে মাটিচাপা পড়ে দুজনের মৃত্যু হয়। অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগে দণ্ডবিধির ৩০৪ (এ) ধারায় আসহাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

এক দশক পর মামলা দায়েরের কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাদি আরজিতে বলেছেন, ঘটনার পর এলাকার লোকজন বিচার চাইতে গেলে তাদের গুম করার হুমকি দিয়েছিলেন আসহাব উদ্দিন। ভয়ে গত ১০ বছর মামলা করতে পারেনি তাদের পরিবার।

এর আগে সোমবার (২০ নভেম্বর) পোল্ট্রি ফার্ম স্থাপন করে পরিবেশ দূষণের অভিযোগে মো.আসহাব উদ্দিন ও তার ছেলে জয়নাল আবেদিনের বিরুদ্ধে পরিবেশ আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। আদালত দুই আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাজারি করেছেন।

গত ৩১ অক্টোবর বাঁশখালীর চন্দ্রপুরের বাসিন্দা আবুল কাশেম তার ছেলেকে মারধরের অভিযোগে মো.আসহাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩২৩ ধারায় আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে সরাসরি সমন জারি করেন।

সিটিজিনিউজ/এইচএম  

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.