আইনজীবী খুন :সহকর্মীদের বিক্ষোভের মুখে আসামীরা

0
23

নিহত আইনজীবী ওমর ফারুক বাপ্পী খুনের মামলার আসামিদের উপর চড়াও হয়েছেন আইনজীবীরা। এসময় আইনজীবীদের মধ্যে অনেকে স্লোগান দিয়ে আসামিদের মারধর করার জন্য তেড়ে যান। তবে পুলিশের হস্তক্ষেপে বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

মঙ্গলবার আদালতে বাপ্পী খুনের মামলার আসামীদের হাজীর করা হলে এই ঘটনা ঘটে।

এদিকে মামলার ছয় আসামির মধ্যে বাপ্পীর স্ত্রী রাশেদা বেগমসহ ৪ আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন মহানগর হাকিম মেহনাজ রহমান।

বাকি তিনজন হলেন, হুমায়ূন রশীদ (২৮), মো.পারভেজ প্রকাশ আলী এবং জাকির হোসেন প্রকাশ মোল্লা জাকির (৩৫)।

আল-আমিন (২৮) এবং আকবর হোসেন প্রকাশ রুবেল (২৩) ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিতে রাজি হওয়ায় তাদের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেননি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

নগর পুলিশের অতিরিক্ত ‍উপ কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী  বলেন, তদন্তকারী চারজনকে সাতদিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন। শুনানি শেষে আদালত চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। বাকি দুজনকে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি নেওয়ার জন্য আদালতে হাজির করা হয়েছে।

আসামিদের উপর আইনজীবীদের চড়াও হওয়ার কথা স্বীকার করে নির্মলেন্দু বলেন, আমরা প্রটেকশন দিয়ে রেখেছিলাম। আসামিদের গায়ে কোন আঘাত করতে পারেনি।

গত ২৫ নভেম্বর সকালে নগরীর চকবাজার থানার কে বি আমান আলী রোডে বড় মিয়া মসজিদের সামনে একটি ভবনের নিচতলার বাসা থেকে বাপ্পীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় তার হাত-পা ও মুখ টেপ দিয়ে মোড়ানো এবং পুরুষাঙ্গ কাটা অবস্থায় পাওয়া যায়।

বাপ্পী চট্টগ্রাম আদালতে আইন পেশায় ছিলেন। ২০১৩ সালে তিনি বারে অন্তর্ভুক্ত হন। তিনি কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার আলী আহমেদ এবং মনোয়ারা বেগমের ছেলে।

এই ঘটনায় বাপ্পীর বাবা বাদি হয়ে নগরীর চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ৬ জনকে আটকের পর সোমবার (২৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় তাদের সাংবাদিকদের সামনে হাজির করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যেরভিত্তিতে পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা জানিয়েছেন, গোপনে বিয়ের পর বারবার চেষ্টা করেও বাপ্পীর কাছ থেকে স্বীকৃতি আদায় করতে না পেরে স্ত্রী রাশেদা বেগমের পরিকল্পনায় হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়।

সিটিজিনিউজ/এইচএম 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here