বায়ুদূষণ সীমার বাইরে তাই মাস্ক পরে মাঠে নেমেছেন ক্রিকেটারা

0 18

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

ক্রিড়া ডেস্ক :: ভারতের রাজধানী দিল্লি যেন একটা গ্যাস চেম্বার। রাজ্যটির আশপাশে বায়ুদূষণ সীমার বাইরে পৌঁছে গেছে। স্কুল-কলেজ বন্ধ রেখেও কোনো কাজ হয়নি। মানুষকে তো আর ঘরে আটকে রাখার দায় নেই। দিল্লির বায়ুমান ৪০০-৪২০-এর মধ্যে ওঠানামা করছে।

যেখানে বায়ুমান তিনশর বেশি হলেই ঘর থেকেই বের হওয়া নিষেধ। তবে দিল্লিতে থেমে নেই স্বাভাবিক জীবনযাত্রা। বায়ুদূষণের প্রভাব পড়েছে ক্রিকেটেও। দিল্লিতে হচ্ছে ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার তৃতীয় টেস্ট। এই ম্যাচে মাস্ক পরে মাঠে নেমেছেন বেশ কয়েকজন লঙ্কান ক্রিকেটার।

টস জিতে ব্যাটিং করতে নামে ভারত। শনিবার ম্যাচের দিন, এদিন বায়ুমান বেড়ে গেছে শহরটিতে। প্রতিরোধ ব্যবস্থা হিসেবে মুখবন্ধনী পরে মাঠে নেমেছেন সফরকারী দলের অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমাল, সান্দাকান, লাকমলসহ কয়েকজন ক্রিকেটার।

ম্যাচ শুরুর আগে ধারাভাষ্যকার রাসেল আরনল্ড, সঞ্জয় মাঞ্জেকাররা বলেন, এই কন্ডিশনে খেলা খুব কঠিন। বিশেষ করে পেসারদের জন্য এই কন্ডিশন মোটেও উপযুক্ত নয়। দিল্লিতে বায়ুদূষণ এতটাই প্রকট আকার ধারণ করেছে যে মনে হবে,

সূর্যটাকে কেউ কালচে ধোঁয়ার আস্তরণে ঢেকে রেখেছে। একশ মিটার দূরের ট্রাফিক সিগন্যালও স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে না। দীপাবলি ধোঁয়ার সঙ্গে যোগ হয়েছে নৈমিত্তিক যানবাহন ও কলকারখানার ধোঁয়া।

সাধারণ মানুষ মাস্ক পরে নিজেদের বিষবাষ্প বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। কিছুক্ষণ খোলা বাতাসে থাকলে মানুষের চোখ জ্বালাপোড়া করছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, দিল্লির বাতাস নিরাপদ বাতাসসীমা থেকে প্রায় ৪৫ গুণ খারাপ। এই বাতাস বেশিদিন থাকলে হৃদরোগ, ফুসফুসজনিত রোগ মহামারী আকার ধারণ করবে।

সিটিজিনিউজ/আই.এস       

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.