মেসির বড় ভাই পুলিশের নজরদারিতে আছেন!

0

ক্রিড়া ডেস্ক  ::  মাঠে তিনি যতটা ক্ষিপ্র, ব্যক্তিজীবনে ঠিক ততটাই শান্ত। আয়কর জটিলতায় কিছুটা আলোচনায় এলেও লিওনেল মেসির আচরণ নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারবেন না তাঁর শত্রুও।

অথচ তাঁর বড় ভাই ম্যাতিয়াস হোরাসিওয়ের কারণে সমালোচনা শুনতে হয় এই আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকরকেও। মেসির বড় ভাই মাতিয়াসের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র রাখার অভিযোগ উঠেছে। যে কারণে তিনি পুলিশের নজরদারিতে আছেন।

মাতিয়াসের নিরাপত্তারক্ষীর বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানায়, নিজ বাড়ির কাছেই একটি ফিশিং ক্লাবে যান মাতিয়াস। সেখানে তিনি একটি দুর্ঘটনায় আহত হন। তাঁর নৌকায় একটি রক্তাক্ত অস্ত্র পাওয়া যায়। অবশ্য মাতিয়াস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অভিযোগ প্রমাণিত হলে শাস্তি হতে পরে এই আর্জেন্টাইন তারকা ফুটবলারের বড় ভাইয়ের। মাতিয়াসের আইনজীবীর দাবি, যে অস্ত্র পাওয়া গেছে সেটা মাতিয়াসের নয়। আর্জেন্টিনার বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম রক্তের দাগসহ ইঞ্জিনচালিত নৌকার ছবি প্রকাশ করেছে।

মাতিয়াসের বাড়ি থেকে ২০ মিনিট গাড়ি চালিয়ে যাওয়া যায় এই ফিশিং ক্লাবে। এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মাতিয়াসের পরিবারও। তাঁরা বলছেন, মাতিয়াসের নৌকাটি দুর্ঘটনাকবলিত হয়। এ সময় তাঁর চোয়ালের হাড় ভেঙে গেছে ও মুখের বিভিন্ন স্থানে কেটে গেছে।

এখন তিনি একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অবশ্য এর আগেও মাতিয়াসকে ২০১৫ সালের অক্টোবরে আটক করেছিল আর্জেন্টিনার পুলিশ। তাঁর গাড়ি তল্লাশি করে অস্ত্র পেয়েছিল পুলিশ। ২০০৮ সালেও একবার পুলিশের কাছে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন মাতিয়াস।

সিটিজিনিউজ/আইএস  


 

Share.

Leave A Reply