দেনমোহর ১ কোটি ৭ লাখ টাকা

0

বিনোদন ডেস্ক   ::   চিত্রনায়ক শাকিব খান তার স্ত্রী অপু বিশ্বাসকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছেন। তবে সেই ডিভোর্স লেটার এখনো গ্রহণ করেননি অপু। এদিকে, অপু বিশ্বাসের প্রতি শাকিব খান দু’টি অভিযোগ করেছেন।

তার আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বলেন, ‘নোটিশে শাকিব খান দুটি কারণ দেখিয়েছেন ডির্ভোসের। একটি হলো- অপু তাদের ছেলেকে কাজের লোকের কাছে রেখে কথিত বয়ফ্রন্ডেকে নিয়ে ভারতে বেড়াতে গেছেন ।

দ্বিতীয় অভিযোগে বলেছেন , অপু তার কোন নির্দেশ মেনে চলেন না। তাই বিবাহ বিচ্ছেদ চান শাকিব।’ শাকিবের এমন সিদ্ধান্তের পর কী ভাবছেন অপু তা জানতে আগ্রহী শাকিব-অপুর ভক্তরা। কিন্তু এই নায়িকা কোথাও নিজের বক্তব্য প্রকাশ করেননি। গতকাল সোমবার বিকেল থেকে নিরুদ্দেশ রয়েছেন তিনি।

তবে অপু বিশ্বাসের পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, শিগগিরই সংবাদ সম্মেলন করে মুখ খুলতে যাচ্ছেন তিনি। ডিভোর্স নোটিশ হাতে পেলে আইনজীবীর পরামর্শ নিয়ে একটি সংবাদ সম্মেলন করবেন তিনি। সেখানে সাংবাদিকদের কাছে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানাবেন।

তবে এই সংবাদ সম্মেলন কবে ও কোথায় অনুষ্ঠিত হবে, তা এখনো ঠিক করেননি আপু বিশ্বাস। এদিকে শাকিব-অপুর বিয়ের কাবিনে দেনমোহর বাবদ ৭ লাখ টাকা বলেই জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

সেই অনুযায়ী শাকিব খান ডিভোর্সের প্রেক্ষিতে দেনমোহর অনুযায়ী ৭ লক্ষ টাকা পরিশোধ করবেন বলে তালাকানামায় উল্লেখ করেছেন। কিন্তু অপুর পারিবারিক সূত্রে জানা গেল, শাকিব-অপুর বিয়ের কাবিননামায় দেনমোহর বাবদ উল্লেখ আছে ১ কোটি ৭ লাখ টাকা।

পুরোটাই তিনি পরিশোধের দাবি করেছেন। শাকিব খানের পক্ষে আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের অফিস থেকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়র কার্যালয়, ২৮ নভেম্বর অপু বিশ্বাসের ঢাকার নিকেতনের বাসা এবং বগুড়ার ঠিকানায় ডিভোর্সের নোটিস পাঠানো হয়েছে।

সিটিজিনিউজ/আইএস  

 

Share.

Leave A Reply