অনির্দিষ্টকালের অবরোধ ডেকেছে চবি ছাত্রলীগের একাংশ

0

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর হত্যা মামলার আসামি সাবেক সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনকে কারাগারে পাঠানোর প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের অবরোধ ডেকেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের একাংশ।

তাদের এই অবরোধে কার্যত অচল হয়ে পড়েছে পাহাড় ঘেরা এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম। অবরোধের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি।

ক্যাম্পাস সূত্র জানায়, সকাল ৭টায় নগরীর বটতলী স্টেশন থেকে ছেড়ে আসা শিক্ষার্থীবাহী শাটল ট্রেনটি ঝাউতলা স্টেশন পৌঁছালে একটি বগির হোস পাইপ কেটে দেয় অবরোধকারীরা। ফলে ওই ট্রেনটি ক্যাম্পাসে যেতে পারেনি।

এর আগে ভোর ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক আটকে টায়ারে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। এজন্য ক্যাম্পাস থেকে চট্টগ্রাম শহরগামী কোনো শিক্ষক বাস ছেড়ে যেতে পারেনি।

তবে সকাল ৮টায় পুলিশ এসে ফটকের তালা খুলে দেয়। কিন্তু এরপরও কোনো শিক্ষক বাস ও শাটল ট্রেন ক্যাম্পাসে আসা যাওয়া করেনি। এ পরিস্তিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ-ইনস্টিটিউটের পূর্ব নির্ধারিত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মো. আবু তাহের চৌধুরী  বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা না আসায় বিভিন্ন বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের পরীক্ষা কমিটি পূর্ব নির্ধারিত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে বলে শুনেছি।’

হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দিন বলেন, ‘ভোরে ক্যাম্পাসে অবরোধের সমর্থনে মেইন গেটে তালা মেরে রেখেছিল অবরোধকারীরা। পরে আমরা গিয়ে তালা খুলে দিই। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।’

অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে ক্যাম্পাসে পুলিশের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর নিয়াজ মোরশেদ বলেন, ‘অবরোধকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে আলোচনা করার চেষ্টা করছি। আশা করি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।’

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর হত্যা মামলার অন্যতম আসামি সাবেক সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনকে সোমবার কারাগারে পাঠানো হয়।

 

এরপর থেকেই চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়ক অবরোধ করে রাখে তার সমর্থিত ছাত্রলীগের একাংশ।

সিটিজিনিউজ/এইচএম 

Share.

Leave A Reply