ফিলিস্তিনে উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের জন্যে ৮০% ছাড়

0
18

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   ::    উত্তর কোরিয়াকে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী দেশকে প্রতিপন্ন করতে বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন একনায়ক কিম জং উন।

আন্তর্জাতিক নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে একের পর ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে চলেছেন তিনি। এ নিয়ে আমেরিকার সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার সংঘাত তুঙ্গে।

কিন্তু, জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেওয়ার বিরোধিতার কারণে এই যুদ্ধবাজ, খ্যাপাটে নেতার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করলেন গাজা ভূ-খণ্ডের এক রেস্তোরাঁ মালিক। তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, তার রেস্তোরাঁয় উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের বিশেষ ছাড় দেয়া হবে।

কিন্তু, মজার ঘটনা হল, গাজা অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, এ মুহূর্তে সেখানে উত্তর কোরিয়ার কোনও নাগরিক নেই। ফিলিস্তিনের কোনও বাসিন্দাও কিম জং উনের দেশের নাগরিকত্ব নেননি।

ইহুদি ও ইসলামি সংস্কৃতির যৌথ পীঠস্থান জেরুজালেম। কিন্তু, প্রাচীন এ শহরটি রাজনৈতিকভাবে কোনও দেশের অন্তর্গত? ইসরাইল না ফিলিস্তিন? এখনও সেই প্রশ্নের মীমাংসা হয়নি।

১৯৬৭ সালে জেরুজালেম শহরের দখলদারি নিয়ে ফিলিস্তিন ও ইসরাইলের যুদ্ধ হয়েছিল। সেই থেকেই শহরের পূর্ব দিকের কিছু এলাকা দখলে রেখেছে তেল আভিভ।

পরবর্তীকালে গোটা শহরটাকেই ইসরাইলের রাজধানী বলে ঘোষণাও করে দেয়া হয়। যদিও এখন জেরুজালেম ইসরাইল বা ফিলিস্তিন কোনও দেশেরই রাজধানী নয়।

দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে প্রাচীন এই শহরটিকে ঘিরে দুই দেশের টানাপোড়েন চলছে। চলতি মাসে আচমকাই জেরুজালেমকে ইসরাইলকে রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ঘোষণা করে দেন, ইসরাইরের বর্তমান রাজধানী তেল আভিভ থেকে মার্কিন দুতাবাসও খুব তাড়াতাড়ি জেরুজালেমে সরিয়ে আনা হবে।

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট তো বটেই, মার্কিন প্রেসিডেন্টকে চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরাকের প্রেসিডেন্ট, জর্ডনের রাজা দ্বিতীয় আবদুল্লা ও মিশরের প্রেসিডেন্ট আবদেলস ফতেহ সিসিও।

প্রসঙ্গত, ফিলিস্তিন বাদে সবকটি দেশই আমেরিকার বন্ধু বলেই পরিচিত। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন উত্তর কোরিয়ার একনায়ক কিম জং উনও।

এই মার্কিন বিরোধী অবস্থানের জন্য তার রেস্তোরাঁয় উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের বিশেষ ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গাজার বাসিন্দা সালিম রাব্বা।

তার ঘোষণা, ‘ফিলিস্তিন ইস্যুতে কোরিয়ার নেতার (কিম জং উন) অবস্থানের জন্য উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের ৮০ শতাংশ ছা়ড় দেয়া হবে।’

কিন্তু, ঘটনা হল, উত্তর কোরিয়ার কোনও নাগরিকের বসবাসের তো প্রশ্নই নেই, কোনও বাসিন্দারও উত্তর কোরিয়ার নাগরিকত্বও নেইন।

প্রসঙ্গত, ফিলিস্তিনের দিক থেকে জেরুজালেমে ঢোকার রাস্তা দিয়ে দখল করে রেখেছে ইসরাইল। ইহুদি রাষ্ট্রটির অনুমতি ছাড়া জেরুজালেমে ঢুকতে পারেননা ফিলিস্তিনের বাসিন্দারা।
সিটিজিনিউজ / এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here