উন্মুক্ত বিনোদনকেন্দ্রে থাকবে মোবাইল কোর্ট

0 19

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

হাকিম মোল্লা:  থার্টি ফার্স্টে যাতে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের টিম নগরীর বিভিন্ন বিনোদনকেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে।

উন্মুক্ত বিনোদনকেন্দ্র গুলো হল, বন্দরনগরীর পতেঙ্গা ও পারকি সমুদ্রসৈকত, নেভাল, সিআরবি, কর্ণফুলী সেতু এলাকা।

সিএমপি সূত্র জানিয়েছে, থার্টি ফার্স্টে সূর্যাস্তের পর কাউকে অবস্থান করতে দেওয়া হবে না। । যারা ইংরেজি বর্ষবিদায়ের জন্য উন্মুক্ত বিনোদনকেন্দ্রে জড়ো হবেন, তাদের সূর্যাস্তের আগেই ঘরে ফিরতে হবে, এমন সিদ্ধান্ত পুলিশের।

এছাড়া অতিরিক্ত ফোর্সের সঙ্গে এবার নগরজুড়ে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের টিমও মাঠে নামাচ্ছে নগর পুলিশ।

রোববার (৩১ জানুয়ারি) ইংরেজি বছর ২০১৭ বিদায় নেবে। সোমবার বিশ্ববাসী স্বাগত জানাবে ২০১৮ সালকে।

বর্ষবিদায়ের শেষ সূর্যাস্ত উপভোগ করতে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদী ও বঙ্গোপসাগরের তীরে ভিড় করেন বিনোদনপ্রেমীরা। প্রতিবছরের মতো এবারও পুলিশ বিনোদনপ্রেমীদের নিরাপত্তায় এবং অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছে।

নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (বিশেষ শাখা) মোখলেছুর রহমান  বলেন, ঘরোয়া আয়োজন ছাড়া উন্মুক্ত স্থানে সূর্যাস্তের পর আমরা কাউকে অবস্থান করতে দেব না। যা কিছু সূর্যাস্তের আগেই করতে হবে।

তিনি বলেন, ইউনিফর্ম এবং সাদা পোশাকে প্রায় ১ হাজার পুলিশ বিভিন্ন স্পটে মোতায়েন থাকবে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে থাকবে। হোটেল-রেস্টুরেন্টেও থাকবে। এছাড়া আমরা এবার মোবাইল কোর্টও করব।

পুলিশের পাশাপাশি প্রায় ৩০০ র‌্যাব সদস্য নগরীতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্ব পালন করবে বলে তিনি ‍জানিয়েছেন।

সিটিজিনিউজ/এইচএম 

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.