হালদায় প্রপেলারের আঘাতে বিরল ডলফিনের মৃত্যু

0 22

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

হালদায় প্রপেলারের আঘাতে বিরল ডলফিনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। যেখানে কার্প জাতীয় মাছের একমাত্র প্রাকৃতিক প্রজনন ক্ষেত্রও।মৃত ডলফিনটির ৭ ফুট লম্বা,ওজন প্রায় দুই মণ। বর্তমানে ডলফিনটি মাটি চাপা দিয়ে রাখা হয়েছে কঙ্কাল সংগ্রহের জন্য।

বুধবার (৩ জানুয়ারি) হাটহাজারী উপজেলার গড়দুয়ারা স্লুইসগেট এলাকা থেকে মৃত ডলফিনটি উদ্ধার করে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে আসেন।

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচারের (আইইউসিএন) লাল তালিকাভুক্ত বিপন্ন প্রজাতির এ জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণীটি মারা যাওয়ায় গভীর উদ্বেগ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়া।

হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরির কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্বে থাকা এ শিক্ষক জানান, ডলফিনটি মরে ভেসে উঠেছিল। হয়তো কয়েকদিন আগে কোনো বালু তোলার ড্রেজার বা যন্ত্রচালিত বড় নৌযানের প্রপেলারের সঙ্গে লেগে আঘাতের কারণে মারা যেতে পারে। এটি অশনি সংকেত। তিন মাসে অন্তত ১০টি ডলফিন মারা গেছে হালদায় এমন তথ্য আমাদের কাছে আছে। যেখানে ডলফিন মারা পড়ছে সেখানে বড় বড় রুই, কাতলা, মৃগেল, কালবাউশ মাছও হয়তো মারা পড়ছে। কিন্ত‍ু সেগুলো মানুষ খাওয়ার জন্য নিয়ে যাচ্ছে বলে আমরা জানছি না। হালদার জীববৈচিত্র্য নানা কারণে হুমকির মুখে পড়েছে।

তিনি জানান, আইইউসিএনের লাল তালিকাভুক্ত এ ডলফিন বিশ্বে হয়তো ১১-১২শ’টি আছে। এর মধ্যে হালদায় আছে ২০০-২৫০টি।

এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ডলফিনটি বড় হওয়ায় সংরক্ষণ করা যাচ্ছে না। তাই আমরা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে সেটি মাটি চাপা দিয়ে রাখতে বলেছি। পরে কঙ্কালটি তুলে সংরক্ষণ ও গবেষণা করা যাবে।

হাটহাজারী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম জানান, ডলফিনটি সাত্তারঘাট এলাকায় মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে।

সিটিজিনিউজ/এইচএম

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.