ইয়াবা বিক্রিতে নিষেধ করায় বোয়ালখালীতে যুবককে গুলি ও কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

0 35

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বোয়ালখালী প্রতিনিধি :বোয়ালখালীতে ইয়াবা বিক্রি করতে নিষেধ করায় গিয়াস উদ্দিন কাদের (২৮) নামের এক যুবককে গুলি করে ও কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা।

উপজেলার সারোয়াতলী লালারহাট এলাকার মনির বিল্ডিং এর সামনে গত শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত গিয়াস উদ্দিন কাদের বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন চিকিৎকরা। তিনি সারোয়াতলী ইউনিয়নের পূর্ব খিতাপচর আদু খান বাড়ীর মো. রফিক চৌকিদারের ছেলে। সে বেঙ্গুরা লালার হাট মনির বিল্ডিংয়ে ভাড়া বাসা পরিবার নিয়ে বসবাস করে।

স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার রাতে গিয়াসের বাসার প্রবেশ দ্বারে আগে থেকে তালা লাগিয়ে ওৎপেতে থাকে দুর্বত্তরা। রাত সাড়ে ১১টার দিকে গিয়াস বাসা প্রবেশ করার সময় কিরিচ, হকিস্টিক দিয়ে অর্তকিত হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এ সময় গিয়াসে শরীর বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে তারা। এছাড়া বাম পায়ে গুলি করে। গুলির শব্দ শুনে এলাকাবাসী ও গিয়াসের স্ত্রী ডাকাত ডাকাত চিৎকার করলে দুর্বৃত্তরা সিএনজি চালিত অটো-রিকশা করে পালিয়ে যায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় গিয়াস উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

জানা গেছে, গিয়াস আগে ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলো। বর্তমানে সে ইয়াবা বিক্রি ছেড়ে দিয়ে ইট, বালু ও গাছের ব্যবসা করছিলো। এতে ইয়াবা ব্যবসায় জড়িতরা ক্ষুদ্ধ হয়ে এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করে পুলিশের।

এ ঘটনায় গুলি খোসা ও বন্দুকের বাট ঘটনাস্থলে পাওয়া গেছে বলে জানায় পুলিশ। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ও আহত গিয়াসের বক্তব্য শুনেছেন বলে জানিয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন,‘ গিয়াসের শরীরে ধারালো অস্ত্রের মারাত্মক আঘাত রয়েছে। এছাড়া বাম পায়ে গুলি লেগেছে।’

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিমাংশু দাস রানা বলেন, ‘গিয়াসের প্রতিপক্ষরা প্রতিশোধ নিতে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা করছি। এ ঘটনায় অপরাধীদের ধরতে অভিযান চলেছে।’

গিয়াসের স্ত্রী রিমি আকতার বলেন, ঘটনার দিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে গিয়াসের চিৎকার ও গুলির শব্দ শুনে ঘর থেকে বেড়িয়ে ডাকাত ডাকাত চিৎকার করলেও দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। প্রায় ৭জনের এ দুর্বৃত্তদের হাতে কিরিচ, হকিস্টিক ও আগ্নেয় অস্ত্র ছিলো।

সারোয়াতলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বেলাল হোসেন বলেন, ‘গিয়াসের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে। ইয়াবা বিক্রিতে বাধা দেয়ায় প্রতিশোধ নিতে এ ঘটনা হতে পারে।’

সিটিজিনিউজ/এইচএম

 

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.