যখন অন্ধকার আর দুর্দিন তখন ছিল মহিউদ্দিন-সেতু মন্ত্রী

0
9

হাকিম মোল্লা: সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরী বাংলাদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ছিল মহিউদ্দিন চৌধুরীর। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানেকে ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট হত্যার পর যত আন্দোলন-সংগ্রাম হয়েছিল সবগুলোতেই নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এই প্রবীণ রাজনীতিবিদ। দেশে যখন অন্ধকার আর দুর্দিন তখন ছিল এ বি এম মহিউদ্দিন।

সেতু মন্ত্রী  রোববার (১৪ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের সফল মেয়র এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্বরণ সভায় নগরীর লালদিঘী ময়দানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন চেীধুরীর সভাপতিত্বে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ, প্রচার সম্পাদক ড. হাসান মাহামুদ, সিটি মেয়র আ. জ. ম. নাছির উদ্দিন, স্থানীয় সাংসদ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, ডা. আফসারুল আমীন এমপি, দিদারুল আলম এমপি, ওয়াসেকা আয়েশা খানম এমপি,সাবেক সাংসদ ও বর্তমান উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম এবং মহিউদ্দিন চৌধুরীর জেষ্ঠ্য পুত্র ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান নওফেল বক্তৃতা করেন।

মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্বরণ সভায় স্মৃতিচারন কালে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আদর্শ গণমানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য কাজ করেছেন মহিউদ্দিন। রাজনৈতিক অপশক্তিকে কোনদিন প্রশ্রয় দেয়নি মহিউদ্দিন চৌধুরী। তিনি সব নেতাদের উর্ধে। তৃণমূল থেকে রাজনীতি করে জাতীয় নেতা হয়েছিলেন মহিউদ্দিন, হয়েছেন চট্টগ্রামের মাটি ও গণমানুষের নেতা।

গণপূর্ত মন্ত্রী আরও বলেন, আমি এবং মহিউদ্দিন চৌধুরী ছিলাম বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক সহচর। তার মৃত্যুতে চট্টগ্রামের রাজনৈতিক অঙ্গনে শূণ্যতা বিরাজ করছে। মহিউদ্দিন মানুষের মুখের ভাষা চোখের ভাষা বুঝতেন। তাঁর নাম চট্টগ্রামের মানুষের হৃদয়ে স্বর্নাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে।

সিটিজিনিউজ/এইচএম 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here