‘ জ্ঞান বিজ্ঞানের শাখা-প্রশাখায় প্রয়োজন সমান দক্ষতা অর্জন ’

0

শাওন আজহার  ::    ‘বাংলাদেশ আইনজীবি এবং আইন ছাত্র পরিষদ’ কর্তৃক চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে দেশের বারোটি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের ছাত্র-ছাত্রীদেরর অংশগ্রহণে একটি ওয়ার্কশপের আয়োজন করা হয়।আজ শনিবার সকাল ১০ টায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

অংশগ্রহণকারী বারোটি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হলো : সাউর্দান বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম , প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম , আন্তর্জাতিক ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম , বিজিসি ট্রাস্ট বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম , বাংলাদেশ ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় , ইউ.আই.টি.এস ঢাকা , ডেফোডিল বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা , নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা , ইস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয় ঢাকা , চট্টগ্রাম আইন কলেজ , প্রাইম বিশ্ববিদ্যায় এবং চট্টগ্রাম বঙ্গবন্ধু ‘ল’ কলেজ।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জর্জের প্রধান জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুন্সি মোহাম্মদ মশিউর রহমান , বিশেষ অতিথি ছিলেন জয় দেব (সিনিয়র এ্যাসিস্টেন্ট জার্জ চট্টগ্রাাম) , ব্যারিস্টার খালিদ হামিদ চৌধুরী ( হেড আফ ‘ল’ এল.সি. এল এস , দক্ষিণ) , রতন কুমার রয় (সভাপতি বাংলাদেশ জেলা বার পরিষদ) , সোয়েব উদ্দিন খান (রেজিস্ট্রার) সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট , এ্যাডভোকেট মুহাম্মদ রাসেল ছিদ্দিকিসহ প্রমুখ।

প্রধান বক্তা তাঁর বক্তব্যে বলেন ‘ কর্মের পেছনে ছুটুন , চর্চা করুুন শুধুমাত্র্র আইন পেশার উপর দখল থাকলে হবেনা , বরং জ্ঞান বিজ্ঞানের সকল শাখা-প্রশাখায় সমান দক্ষতা অর্জন প্র্রয়োজন ’। ভালো মানুষ হতে হবে , এর সাথে প্রয়োজন সমালোচনা পরিহার করে, মিথ্যাচারে লিপ্ত না হয়ে নৈতিক দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করা ।’

তিনি আরো বলেন ‘ব্যাক্তিত্বের বিকাশ ঘটিয়ে পরিচ্ছন্ন পরিধানে ভাবমূর্তির আবির্ভাবই হলো আইন পেশার মূল প্রাপ্তি ’। আইন পেশাকে যারা মনে প্রাণে গ্রহণ করেছেন কেবল মাত্র তাঁরায় জানেন ব্যাক্তিত্বের কোন বিকল্প নেয়, সঠিক কর্ম দিয়ে নিজের জায়গা করে নিতে হবে। প্র্রত্যাশার সহিত প্রাপ্তি হলো মূল দীক্ষা ।

নবীনদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন ‘ নবীনরা হতাশ হবেন না , সিনিয়রদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে আইন পেশাকে মনে প্রাণে গ্রহন করুন ’ তাদের সানিধ্য প্রাপ্তির মধ্য দিয়ে আপনারা এগিয়ে যেতে পারবেন।’

বিশেষ অতিথিরা তাঁদের বক্তব্যে বলেন ‘ কর্মস্থলে উকিলদের মধ্যে নানরকম তর্ক-বিতর্ক হয়ে থাকে , এক্ষেত্র্রে তা যেন কেবলমাত্র আদালত প্রাঙ্গনে সীমাবদ্ধ থাকে , এর বাহিরে যেন না হয় !যৌক্তিক ও বাস্তবিক পরামর্শের মধ্য দিয়ে আইন পেশাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে । আইনের পাশাপাশি সবজান্তা হতে হবে, যা কর্মক্ষেত্রে পরিপূর্ণতার স্বাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে। সম্মান রাখতে জানতে হবে, বিচার ব্যবস্থায় সঠিক আইন প্রয়োগ করতে হবে।

‘বাংলাদেশ আইনজীবি এবং আইন ছাত্র পরিষদ’ আয়োজকরা বলেন ‘এ ওয়ার্কশপের মূল উদ্দেশ্য হলো বিনামূল্যে আইনের সহায়তা প্রদান , শিক্ষানবীশ সেমিনারের আয়োজন , আইনজীবি এবং আইনের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে অভ্যন্তরীণ সু-সম্পর্ক তৈরী করা যা অাইনের বিষয়বস্তুকে আরো গ্রহণযোগ্য করে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।’

সিটিজিনিউজ / এসএ

Share.

Leave A Reply