ইতিহাসের পাতায় রাশেদ খান

0

কথায় বলে—কারো পৌষ মাস, কারো সর্বনাশ। সর্বনাশটা আফগানিস্তান জাতীয় দলের নিয়মিত অধিনায়ক আসগর স্টানিকজাইয়ের।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের আগেই ইনজুরিতে পড়ে ১০ দিনের জন্য দল থেকে ছিটকে পড়েছেন এই সফল অধিনায়ক। আসগরের অনুপস্থিতিতে পৌষমাসটা ধরা পড়েছে বর্তমান ব্যাটসম্যানদের ত্রাস লেগস্পিনার রশিদ খানের হয়ে।

অবশ্য যেভাবে একের পর এক রেকর্ড করে চলেছেন নিউ সেনসেশন রশিদ, তাতে রেকর্ডের ঝুলি নতুন নতুন রেকর্ডে পরিপূর্ণ করা সময়ের অপেক্ষা মাত্র।

কিছুদিন আগেই এই লেগস্পিনার ওয়ানডে র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠেছেন। এর পরপরই টি-টোয়েন্টির শীর্ষস্থান। রেকর্ডের খাতা নতুন এক রেকর্ডে সংযোজন করতে যাচ্ছে রশিদ খানের নাম।

আসগরের অনুপস্থিতিতে সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হতে যাচ্ছে রশিদ খানের।

আগামী ৪ মার্চ বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে আফগানিস্তান। ওই ম্যাচে আফগানিস্তানের হয়ে নেতৃত্বে থাকবেন ১৯ বছর বয়সী রশিদ খান।

প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, ‘চিকিৎসকের পরামর্শমতে, আসগর স্টানিকজাইয়ের মাঠে ফিরতে ১০ দিন সময় লাগবে।

আসগরের অনুপস্থিতিতে সহ-অধিনায়কের দায়িত্বে থাকা রশিদ খান এ সময়ে পূর্ণ অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করবেন।’ ভারতের ক্রিকেটার নবাব মনসুর আলি খান পতৌদি ১৯৬২ সালে মাত্র ২১ বছর বয়সে ভারতের জাতীয় দলের দায়িত্ব পালন করেছেন।

তাঁর রেকর্ড ভেঙে ২০০৪ সালে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটার তাতেন্দা তাইবু মাত্র ২০ বছর বয়সে অধিনায়কের গুরুদায়িত্ব পালন করেন।

তবে তাঁদের সবাইকে ছাপিয়ে মাত্র ১৯ বছর বয়সে রশিদ খান আফগানিস্তানের অধিনায়কত্ব সামলানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সিটিজিনিউজ/এসএ

Share.

Leave A Reply