ট্রাক,কাভার্ডভ্যান ও প্রাইমমুভার বন্ধ করে বন্দরে ধর্মঘট পালন

0

কোন ধরনের পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই প্রাইমমুভার ট্রেইলর শ্রমিকদের ধর্মঘটে গত শনিবার প্রায় ৫ ঘন্টা অচল রাখার পর এবার বেসরকারি ডিপোতে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও প্রাইমমুভার মালিক-শ্রমিকরা।

সোমবার সকাল থেকে ১৬টি অফডকে ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও প্রাইমমুভার প্রবেশ বন্ধ রয়েছে। এতে কার্যত চট্টগ্রাম বন্দরই অচল হয়ে পড়েছে। কারণ শতভাগ রফতানি পণ্য বেসরকারি এসব ডিপো থেকেই জাহাজিকরণ করা হয়।

ট্রাক, কাভার্ডভ্যান ও প্রাইমমুভার মালিকদের দাবি অফডক মালিকরা অন্যায়ভাবে এক হাজার টাকা করে শ্রমিকদের কাজ থেকে আদায় করছে। যা মালিকদেরকেই পরিশোধ করতে হয়। কোন ধরনের আলোচনা ছাড়া টাকা আদায় করায় সোমবার সকাল থেকে অফডকে গাড়ি প্রবেশ বন্ধ করে দেয় তারা।

তবে অফডক মালিকরা বলছেন, পার্কিং ও গেইট ফি ৫০ করে ১০০ টাকা আদায় করা হচ্ছে। এর বাইরে অন্য কোন টাকা আদায় করা হয় না। এছাড়া পার্কিং ফি সব অফডকে নেওয়া হয় না। যাদের পার্কিং আছে তারাই নিচ্ছেন।

বাংলাদেশ ইনল্যান্ড কন্টেইনার ডিপোটস’র (বিকডা) সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমীন শিকদার বলেন, অফডক বন্ডেড এরিয়া। এখানে গাড়ি ঢুকলে পাস দিতে হয়, রেজিন্টার মেন্টেইন করতে হয়। তাদের আমরা বিভিন্ন সুযোগ দিচ্ছি তাই ৫০ টাকা করে আদায় করা হয়। এছাড়া যাদের পার্কিং আছে তারা ৫০ টাকা নিচ্ছেন। যাদের নেই তারা কেবল গেইট ফি নিচ্ছেন।

চট্টগ্রাম কন্টেইনারবাহী প্রাইমমুভার মালিক সমিতির কার্যকরী সভাপতি মো.সিদ্দিক বলেন, ডিপো মালিকরা নিজেরাই নিজেদের বিপদ ডেকে এনেছে। তারা আমাদের সাথে কোন ধরনের আলোচনা ছাড়া পার্কিং ফি ১০০ টাকা, গেইট ফি ৫০ ও কন্টেইনার নামানো ওঠানোর জন্য লেবারদের জন্য ৭০০ থেকে ৮০০ টাকা বখশিশ আদায় করছে।

তিনি বলেন, গাড়ির চালকরা যখন আমাদের একটি স্লিপ ধরিয়ে দিয়ে এক হাজার ১১০০ টাকা দাবি করছে তখন আমরা বিষয়টি জানতে পারলাম। চালকদের থেকে টাকা নিলেও টাকা দেওয়ার মালিক আমরা।

অথচ আমাদের সঙ্গে কোন আলোচনা করেনি। বিষয়টি জানার পর অফডক মালিকদের সঙ্গে দেখা করে বললাম বিষয়টা আমরা জানিনা। টাকা নেওয়ার আগে আমাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করা দরকার ছিল। কিন্তু তারা বললো-আলোচনার দরকার নেই বলেই চালু করেছি।

পরে বিষয়টি আমরা সংশ্লিষ্ট সবাইকে জানিয়ে সোমবার সকাল থেকে সকল অফডকে গাড়ি প্রবেশ বন্ধ করে দিয়েছি।

Share.

Leave A Reply