ঢাকায় নেয়া হয়েছে রাঙ্গুনিয়ার সেই দগ্ধ গৃহবধূকে

80
  |  শনিবার, নভেম্বর ২১, ২০২০ |  ৮:০৮ অপরাহ্ণ
দগ্ধ ইয়াছমিনকে এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেয়া হচ্ছে। ছবি: সিটিজিনিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক : ‘স্বামীর দেয়া’ পেট্রোলের আগুনে দগ্ধ চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার ইয়াছমিন আকতারকে (৩০) ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেয়া হয়েছে।

আজ শনিবার (২১ নভেম্বর) বেলা ১১টার দিকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

Advertisement

এদিকে স্ত্রীকে পেট্রোলের আগুনে ঝলসে দেয়ার অভিযোগে স্বামী মোহাম্মদ রাফেলকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে শনিবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

দগ্ধ ইয়াছমিনের অবস্থা ভালো নয়, জানিয়ে তার বাবা হারুনুর রশিদ সিটিজিনিউজকে বলেন, ‘চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, শরীরের ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। তাই তাকে উন্নত চিকিৎসা দিতে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।’

এর আগে, যৌতুক না পেয়ে ওই নারীকে পেট্রোল ঢেলে ঝলসে দেয়ার অভিযোগে তার স্বামী মোহাম্মদ রাফেলের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন ভিকটিমের বাবা হারুনুর রশিদ।

তাদের সাত বছরের সংসারে চার বছরের এক শিশুও রয়েছে। ‘তোর বিষ কমাচ্ছি’ বলেই স্ত্রী ইয়াছমিনের যোনি ও পায়ুপসহ পুরো নিম্নাঙ্গে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় স্বামী রাফেল।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার কোদালা ইউনিয়নের গোয়ালপুরা গ্রামের সন্দ্বীপ পাড়ায় শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি তদন্ত মাহবুব মিল্কী বলেন, ‘শুক্রবার আসামি রাফেলকে গ্রেফতারের পর শনিবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়। আদালতে সে এলোমেলো কথা বলছে। তবে পুলিশের পক্ষ থেকে তার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। আদালত পরবর্তীতে এই বিষয়ে শুনানি করার কথা জানিয়েছেন।’

কেএন

Advertisement