ফ্যাট তবু ফিট!

89
 স্বাস্থ্য ডেস্ক : |  বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২১ |  ৩:০২ অপরাহ্ণ

পড়েই অদ্ভুত লাগলো? এমন কম্বিনেশন আগে শোনা যায়নি। কিন্তু এখন তো সবই সম্ভব। মানুষই সব পারে। তাই ফ্যাট থেকেও ফিট থাকা অলীক কল্পনা নয়। কিন্তু এটা কীভাবে সম্ভব? ২০১২ সালের একটি গবেষণা জানিয়েছে যে ফিটনেসের পথে ওবেসিটি কোনো সমস্যা নয়। শুধু তাই নয়, সাধারণ মানুষের তুলনায় ওবেসিটির সমস্যায় ভোগা পুরুষ ও মহিলারা ৩.১ বছর বেশি বেঁচেছেন। এমনকি ওবেস রোগীদের মেটাবলিক রেট সাধারণ ওজনের মানুষদের থেকেও স্বাভাবিক। তাই তারাও যে স্বাস্থ্যকর এটা প্রমাণিত হয়েছে। এর অর্থ এটাও বোঝায় যে একজন সাধারণ মানুষের হৃদরোগে মৃত্যুর সম্ভাবনা যতটা তাদের ক্ষেত্রেও সেই মাত্রা ঠিক ততটাই সমান।

গবেষকরা বলেছেন যে একজন ওবেস ব্যক্তি যদি ঠিকমতো শরীরচর্চা ও ডায়েট মেনে চলেন তাহলে তাকেও সুস্থ বলে মনে করা হবে। যদি আপনি নিয়মিত শরীরচর্চার মধ্যে থাকেন, তাহলে আপনি ঠিক কতটা সুস্থ তার পরিমাপে যাওয়ার দরকার নেই।

Advertisement

অনেক সমালোচক আবার বলেন যে ওবেস ব্যক্তিরা সুস্থ কিনা সেটা পরিমাপ করার তথ্যগুলি যথাযথ নয়। তারা বলেন যে যেসব স্বাস্থ্য রেকর্ডগুলিতে তাদের সুস্থতা নিয়ে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে সেখানে বেশ কিছু প্রাসঙ্গিক তথ্যকে এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে বা তার উল্লেখ নেই। আবার তাদের বক্তব্য, সেই তথ্যে উহ্য রাখা হয়েছে তাদের জীবনযাপন পদ্ধতি এবং তার সঙ্গে তাদের বিভিন্ন স্তরীয় ডায়েট ও শরীরচর্চার কী সম্পর্ক ও প্রভাব রয়েছে তারও উল্লেখ নেই।

এক্ষেত্রে বেশিরভাগ বিজ্ঞানীরা বলছেন যে যদি মেদকে সুস্থতার মাপকাঠি হিসেবে ধরা হয় তাহলে বেশ কিছু মানুষ তাদের প্রতিদিনের অভ্যেসের শরীরচর্চা ও ডায়েট মানতে আর আগ্রহী থাকবেন না। সেক্ষেত্রে ওজন বৃদ্ধিকেও তারা ভয় পাবেন না। এই চিন্তাধারা তাদের শরীরকে এমন এক জায়গায় নিয়ে যাবে যেখানে তারা নানারকম রোগভোগের মুখে পড়তে বাধ্য। মেদের প্রাচুর্যকে কখনোই ফিটনেসের থেকে বেশি গুরুত্ব দেবেন না। বরং এটা বলা যায় যে আপনি যদি প্রতিদিন শারীরিকভাবে সক্রিয় থাকেন তাহলে একটু ওভারওয়েট হলেও সেটা বড়ো সমস্যা নয়।

Advertisement