ONU HEBDO’র ভিডিও তথ্যচিত্রে মাহমুদা বেগমের সফলতার গল্প – Ctgnews
ctgnew

ONU HEBDO’র ভিডিও তথ্যচিত্রে মাহমুদা বেগমের সফলতার গল্প

সাফি-উল হাকিম :: জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে উঠেছে বাংলাদেশের শান্তিরক্ষী নারী পুলিশ। নানান প্রতিকূলতা সত্ত্বেও নিষ্ঠার সাথে চ্যালেঞ্জিং দায়িত্ব পালনসহ মমত্ববোধের কারণে জাতিসংঘ শান্তি মিশনে পুরুষের চেয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে বাংলাদেশ পুলিশের নারী সদস্যরা-এমন চিত্রই ফুটে উঠেছে ONU HEBDO ’র ভিডিও তথ্যচিত্রে ।

জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশন United Nations Organization Stabilization Mission in the DR Congo (MONUSCO)  এর বিভিন্ন কর্মকা- এবং মিশনে কর্মরত বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা বেগমের প্রাত্যহিক কর্মকান্ডের উপর ভিত্তি করে ভিডিও তথ্যচিত্রটি নির্মান করেন ONU HEBDO ( পিআইডি, ইউএন) সাংবাদিক ডানিয়েল ওয়াংসিসা ।

মনোস্কো’র বিভিন্ন কর্মকা- নিয়ে নির্মিত প্রায় সাড়ে চৌদ্দ মিনিটের এই ভিডিও তথ্যচিত্রে গঙঘটঝঈঙ তে কর্মরত বাংলাদেশ নারী পুলিশ সদস্যদের ঝুকিপূর্ণ নানান কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরেন ONU HEBDO. এরমধ্যে মাহমুদা বেগমের উপর চার মিনিটের ভিডিও তথ্যচিত্র নির্মান করেন কঙ্গোর সাংবাদিক ডানিয়েল ওয়াংসিসা ।

`24 hours with a peace keeper – শিরোনামে তথ্যচিত্রটি ইতোমধ্যে কঙ্গোতে প্রচারিত হয়েছে প্রায় ১০টি আর্ন্তজাতিক টিভি চ্যানেলে। একই সাথে নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওচিত্রটি প্রকাশ করেছে ‘ONU HEBDO’ কর্তৃপক্ষ ।

কঙ্গোতে শান্তি মিশনের কর্মরত ব্যানএফপিইউ-১ এর (রোটেশন-১০) নারী কন্টিনজেন্টে অপারেশন অফিসার হিসেবে কর্মরত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা বেগম । ২০১৬ সালের ১লা মে থেকে চলতি বছর (২০১৭) সালের ১৭ মে পর্যন্ত জাতিসংঘ শান্তি মিশনে কর্মরত ছিলেন তিনি । বর্তমানে তিনি পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত ।

মাহমুদা বেগম সম্পর্কে জানতে চাইলে মুঠোফোনে ডানিয়েল বলেন, মমত্ববোধের কারণে জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে পুরুষের চেয়ে নারী সদস্যরা ব্যাপক জনপ্রিয় । নানান প্রতিকূলতার মধ্যেও তাঁরা কৃতিত্বের সাথে চ্যালেঞ্জিং দায়িত্ব পালন করছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ভিডিওচিত্রে কংঙ্গোতে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী হিসেবে নারীদের দায়িত্ব পালনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার চিত্র ফুঁটিয়ে তোলা হয়েছে বলেও দাবি করেছেন মনোস্কোতে কর্মরত কঙ্গোর এই তরুণ সাংবাদিক।

পুলিশ সদর দপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, ১৯৮৯ সাল থেকে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে অন্যান্য বাহিনীর পাশাপাশি বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যরা অংশ নিচ্ছে ধারাবাহিকভাবে। এর মধ্যে ২০১০ সাল থেকে মিশন সমূহে দায়িত্ব পালন করছে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নারী পুলিশ সদস্য।

নির্বাহী কার্যক্রম ও পর্যবেক্ষণ মিশনে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বাংলাদেশের নারী পুলিশ সদস্যরা বিভিন্ন জটিল ও অপারেশনাল দায়িত্বও সফলতার সাথে পালন করছে। কঙ্গোর নিরাপত্তা রক্ষার পাশাপাশি পুলিশ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়ন, স্থানীয় তদন্তকারীদের উৎসাহিত করতে সহায়তা, মানুষের জন্য ঝুঁকি প্রশমনের পাশাপাশি শত্রু মোকাবেলাও করছেন নারী পুলিশ সদস্যরা।

জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে এই পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ৬ হাজার পুলিশ সদস্য অংশ নিয়েছেন। বর্তমানে মিশনে তিন হাজার হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। এর মধ্যে বিশ্বের অতি ঝুঁকিপূর্ণ ও যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশ হাইতি ও কঙ্গোতে ফর্মড পুলিশ ইউনিট- এফপিইউ দুটি ফিমেল কন্টিনজেন্ট সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করছে। হাইতি ও কঙ্গো’র এফপিইউ তে নারী পুলিশের দক্ষতার কার্যক্রম ইতোমধ্যে জাতিসংঘের ব্যাপক প্রসংশা কুড়িয়েছে।

কঙ্গো, হাইতি ছাড়াও দক্ষিণ সুদান, দারফুর, আইভরিকোস্ট, মালি, লাইবেরিয়া এবং সোমালিয়াসহ বিভিন্ন শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ পুলিশের নারী পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। এসব দেশে দায়িত্ব পালনে সফল ও প্রংশনীয় ভুমিকা রাখায় বাংলাদেশের পুলিশ সদস্যদের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে জাতিসংঘ মিশনে।

সাংবাদিক ডানিয়েল ওয়াংসিসা বলেন, মনোস্কো মিশেনে ব্যানএফপিইউ-১ এর (রোটেশন-১০) কর্মরত বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদা বেগম কৃতিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনসহ যুদ্ধবিধ্বস্ত পরিস্থিতি মোকাবেলা, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ এবং নারী ও শিশুর সামাজিক সুরক্ষায় প্রশংসনীয় ভুমিকা রেখেছেন।

———-

সর্বশেষ সংবাদ


নোটিশ : “এই মাত্র পাওয়া” খবর আপনার মোবাইলে পেতে আপনার মোবাইলের ম্যাসেজ অপশন থেকে START পাঠিয়ে দিন 4848 নম্বরে ।
ctgnew
প্রধান উপদেষ্টা : আব্দুল গাফফার চৌধুরী
সম্পাদক : সোয়েব উদ্দিন কবির
ঠিকানা : ৯২ মোমিন রোড ,
শাহ আনিস মার্কেট ৫ম তলা, চট্রগ্রাম ।
মোবাইল : ০১৮১৬-৫৫৩৩৬৬
টিএন্ডটি : ০৩১-৬৩৬২০০

Design and Development by : Creative Workshop

55 queries in 1.284 seconds.