সরকার একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দিবাস্বপ্ন দেখছে : ডাঃ শাহাদাত

0 206

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

মামলা-হামলা, নির্যাতন -নিপীড়ন,চালিয়ে বি.এন.পির রাজনীতিকে ধ্বংস করা যাবে না। এই অবৈধ সরকার গণতন্ত্রকে নির্বাসনে দিয়ে একনায়কতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দিবাস্বপ্ন দেখছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই করে যাচ্ছে ।সরকার খালেদা জিয়া ও জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে নানাভাবে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে ’  ১০ ই এপ্রিল ফেনী কোর্টে হাজিরা শেষে বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, মিথ্যা মামলায় দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়ে কারাগারে রেখেছে। দেশের মানুষের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার বলতে কিছুই নেই মানবাধিকার কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ কমিশনের পরিণত হয়েছে। সরকারের উচ্চ মহলের ইশারায় বেগম খালেদা জিয়ার জামিন দিয়েও আবার সে জামিন স্থগিত করে রেখেছে। কিন্তু সরকারের কোনো ষড়যন্ত্রই সফল হবে না।

সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে এদেশের মানুষ মুক্ত করে আনবে এবং দেশনেত্রীর বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই এদেশের গণতন্ত্র ও ভোটারাধিকার প্রতিষ্ঠা করা হবে।এ সময় আইনজীবীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেনী জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এডভোকেট আবু তাহের, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য এডভোকেট মেজবাহ উদ্দিন খান, এডভোকেট মফিজুল হক ভূঁইয়া, এডভোকেট আবুল বশর চৌধুরী, এডভোকেট নুরুল আবসার চৌধুরী, অ্যাডভোকেট ইউসুফ আলম, এডভোকেট পার্থ পাল চৌধুরি, এমদাদ হোসেন প্রমুখ আইনজীবী।

এসময় বিএনপি নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেনী জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন, চট্টগ্রাম মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন দিপ্তী, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি গাজী মোঃ সিরাজ উল্লা,নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, ফেনী জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন পাটোয়ারী, জেলা ছাত্রদল নেতা সালাউদ্দিন মামুন, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রদলের সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌধুরী, জিয়াউর রহমান জিয়া প্রমুখ।
সিটিজিনিউজ / এসএ

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.