অলিম্পিক কমিটির সিদ্ধান্তে চটেছেন নার্সরা

46
 খেলাধূলা ডেস্ক: |  সোমবার, মে ৩, ২০২১ |  ১১:০৮ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রীড়া অনুষ্ঠান টোকিও অলিম্পিক আয়োজনে এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে আয়োজক কমিটি। করোনা মহামারির এই আবহে আয়োজকদের নিশ্চিত করতে হবে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি ও সুরক্ষিত পরিবেশ। সেই লক্ষ্যে তারা জানিয়েছে, জরুরি ভিত্তিতে তাদের ১০ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী প্রয়োজন। এর মধ্যে কেবল ৫০০ নার্সকে টোকিও গেমে সেবা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

সংবাদসংস্থা এপির খবরে বলা হয়েছে, নার্সরা আয়োজকদের এ সিদ্ধান্তে চটে গেছেন। অনেক নার্স তাদের অনঢ় সিদ্ধান্তের কথাও জানিয়েছেন। তারা মনে করছেন, মানুষের জীবনকে আয়োজকরা খুব হালকাভাবে নিয়েছে।

Advertisement

পরিপ্রেক্ষিতে আয়োজকরা বলছেন, তারা করোনাভাইরাস থেকে প্রভাবমুক্ত হওয়ার খুব কাছে রয়েছে। যেকোনো মূল্যেই তারা করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই আন্তর্জাতিক এই খেলাটির আয়োজন করতে চান।

১০ বছর ধরে নার্সিং পেশায় যুক্ত থাকা আকেদা জানান, যেখানে একটি হাসপাতাল থেকে একজন নার্স সরতে পারছে না, সেখানে তারা কী করে ৫০০ জন নার্স চায়? অলিম্পিকে নার্সদেরও সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে।

কাঙ্ক্ষিত এই অলিম্পিক আগামী তিন মাসের মধ্যে শুরু হতে যাচ্ছে। অলিম্পিকের পর্দা উঠলেই খুলে দিতে হবে সীমান্ত প্রবেশ পথ। এ বছর অলিম্পিক ও প্যারালিম্পিক ক্রীড়াবিদ, হাজার হাজার অন্যান্য কর্মকর্তা, বিচারক, বিজ্ঞাপনদাতা ও মিডিয়াকর্মী মিলে ১৫ হাজারের বেশি মানুষ প্রবেশ করবে।

জাপান ফেডারেল অব মেডিকেল ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের মহাসচিব সুসুমু মোরিতা বলেন, আমাদের ফোকাস মহামারিতে, অলিম্পিকে না।

গত মাসে ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নাল জানিয়েছিল, জাপানের অলিম্পিক আয়োজনের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা উচিত। কারণ জনসমাগমের এই খেলা মোটেও নিরাপদ নয়।

টোকিও মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান হারুও ওযাকি বলছেন, অলিম্পিকের আসর এবারের জন্য কঠিন। কারণ অনেক দেশেই করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়ছে।

জাপানে কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ১০ হাজার মৃত্যু ছাড়িয়েছে। দেশটির ভ্যাকসিন গ্রহণের হারও খুব কম। মাত্র এক থেকে দুই শতাংশ।

২০২০ সালের ২৪ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল টোকিও অলিম্পিক। করোনাভাইরাসের জন্য ইভেন্ট এক বছরের জন্য স্থগিত করা হয়। চলতি বছরের ২৩ জুলাই থেকে টোকিওতে এই আসর শুরু হওয়ার কথা রয়েছে।

পিএন

Advertisement