আড়াই মাস পর উদ্ধার হলো পুলিশের খোয়া যাওয়া অস্ত্র, গুলি

456
 মো. আবু শাহেদ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি |  সোমবার, জুন ৭, ২০২১ |  ১:৫১ অপরাহ্ণ

আড়াই মাস পর উদ্ধার হলো পুলিশের খোয়া যাওয়া অস্ত্র, গুলিচট্টগ্রামের হাটহাজারীতে হেফাজতে ইসলামের সহিংসতার সময় পুলিশের খোয়া যাওয়া একটি পিস্তল ও ১৬ রাউন্ড গুলি আড়াই মাস পর পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে হাটহাজারী মডেল থানা পুলিশ।

আজ ৭ জুন, সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহাদাৎ হোসেন।

Advertisement

এর আগে গতকাল রোববার বিকাল সাড়ে তিনটায় হাটহাজারী পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড মীরের খীল রোডের, মীর বাড়ীর মীর ইলিয়াছ এর ১ তলা ভবনের উত্তর পাশে বাউন্ডারীর ভেতর আগাছা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গুলি ও পিস্তলটি উদ্ধার করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মার্চ ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদ এলাকায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি বিরোধী বিক্ষোভে পুলিশ ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে থানা ভবন, ভূমি অফিস, ডাকবাংলোয় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়। পুলিশের সাথে সংঘর্ষে মাদ্রাসা ছাত্র ও পথচারীসহ ৪ জন নিহত হয়। এ ঘটনার জের ধরে বিক্ষুব্ধ মাদ্রাসা ছাত্ররা ৪ জন পুলিশ সদস্যকে অবরোধ ও মারধর করে। তাদের মধ্যে এএসপি (শিক্ষানবীশ) ফারাবী ও এসআই মেহেদী হাসান গুরুতর আহত হন। ওই সময় হেফাজতের নেতাকর্মীরা এসআই মেহেদীর কাছ থেকে একটি পিস্তল ও গুলি ছিনিয়ে নিয়েছিলো বলে অভিযোগ করেছিলো পুলিশ।

হাটহাজারী সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহাদাৎ হোসেন জানান, এসব ঘটনায় হাটহাজারী মডেল থানায় মোট ১০টি মামলা রুজু হয়। এরমধ্যে ৩টি মামলায় সুনির্দিষ্ট করে আসামী করা হয়েছে ১৪৯ জনকে। দু’টি মামলার সুনির্দিষ্ট আসামীদের মধ্যে রয়েছেন হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির আমির ও বর্তমান আহ্বায়ক জুনায়েদ বাবুনগরীসহ হেফাজত নেতাদের নাম। অন্য মামলাগুলোতে জামায়াত-বিএনপি’র নেতা-কর্মী ও সাধারণ মানুষের নাম যুক্ত করা হয়। এতে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে ৬ হাজার ২৫০ জনকে।

কেএন

Advertisement